শেফ

শেফ: ক্যারিয়ার প্রোফাইল - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

দেশে এখন প্রায় প্রতিটি জেলা শহরে বড় বড় হোটেল, রেস্টুরেন্ট, গেস্ট হাউস, ফাস্ট ফুড শপ ইত্যাদি প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠছে। এসব প্রতিষ্ঠানে রান্নার জন্য অভিজ্ঞ মানুষদের প্রয়োজন। আগের দিনে রন্ধনশিল্পে প্রাতিষ্ঠানিক জ্ঞান না থাকলেও শুধুমাত্র অভিজ্ঞ ব্যক্তিরা রান্নার চাকরি করতেন। কিন্তু বাংলাদেশের কালিনারি জগতেও এখন আমূল পরিবর্তন এসেছে। সেজন্য প্রফেশনাল শেফদের চাহিদা অনেক বেশি।

এক নজরে একজন শেফ

সাধারণ পদবী: প্রফেশনাল শেফ
বিভাগ: কালিনারি আর্টস
প্রতিষ্ঠানের ধরন: হোটেল/মোটেল/রেস্তোরাঁ/চেইন ফুড শপ/রিসোর্ট
ক্যারিয়ারের ধরন: ফু্ল-টাইম
লেভেল: এন্ট্রি/মিড/টপ
অভিজ্ঞতা সীমা: কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ
ক্যারিয়ারের শুরুতে সম্ভাব্য বেতনসীমা: ২০,০০০-৩৫,০০০ টাকা
সম্ভাব্য বয়সসীমা: কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ
মূল স্কিল: সুস্বাদু খাবার তৈরি করার দক্ষতা, পুষ্টি ও খাদ্যমান সংক্রান্ত জ্ঞান
বিশেষ স্কিল: ধৈর্য, ব্যবস্থাপনা, ব্যবসায়িক ধারণা
ক্যারিয়ারকীর ইউটিউব চ্যানেল থেকে নেয়া

একজন শেফ কোথায় কাজ করেন?

একজন শেফ সাধারণত নিচের প্রতিষ্ঠানগুলোতে কাজ করেনঃ

  • রেস্টুরেন্ট
  • ফাস্ট ফুড শপ
  • বেকারি
  • হোটেল
  • মোটেল
  • ট্যুরিজম এজেন্সি

একজন শেফ কী ধরনের কাজ করেন?

  • বিভিন্ন ধরনের খাবার রান্না করা;
  • খাবারের পুষ্টি ও মান নিশ্চিত করা;
  • রান্নাঘরের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখা;
  • নতুন রেসিপি নিয়ে কাজ করা;
  • খাবারের মেন্যু তৈরি করা;
  • রান্নাঘরের উপকরণ ব্যবস্থাপনা;
  • খাবার পরিবেশনকারীদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া।

একজন শেফের কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয়?

সাধারণত এইচএসসি পাস করার পর হোটেল ম্যানেজমেন্টের উপর অনার্স শেষ করে এ পেশায় আসা যায়। তাছাড়া এসএসসি বা এইচএসসি পাস করার পর ‘ফুড অ্যান্ড বেভারেজ প্রোডাকশন’ ডিপ্লোমা কোর্স সম্পন্ন করেও শেফ হওয়া সম্ভব।

একজন শেফের কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয়?

  • ডিটেইলিং ও পরিবেশনের ওপর ভালো দক্ষতা;
  • বিভিন্ন লোকাল কুইজিন এবং তাদের মশলা ও উপাদান সম্পর্কে ভালো জ্ঞান;
  • কম সময়ে নির্দিষ্ট বাজেটের মধ্যে ভালো খাবার রান্না করার দক্ষতা;
  • খাবারের পুষ্টি নিয়ে ভালো জ্ঞান;
  • নতুন রেসিপি নিয়ে কাজ করার দক্ষতা,
  • হোটেল বা রেস্তোরাঁর মেনু তৈরি করার দক্ষতা;
  • দল পরিচালনা করতে পারা;
  • হোটেল ম্যানেজমেন্ট ও ট্যুরিজম ব্যবসা সংক্রান্ত ধারণা;
  • ভাষাগত দক্ষতা (বিশেষ করে আন্তর্জাতিক চেইনগুলোতে কাজ করার ক্ষেত্রে)।

কোথায় পড়বেন কালিনারি আর্টস?

শেফ বা কুক, হোটেল ম্যানেজমেন্ট কোর্সের একটি অংশ। প্রশিক্ষিত শেফ হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে হলে ‘ফুড অ্যান্ড বেভারেজ প্রোডাকশন’ কোর্স সম্পন্ন করতে হবে। এ কোর্সের অন্তর্ভুক্ত বিষয়গুলো হলোঃ বাংলাদেশি, চায়নিজ, ইটালিয়ান, ইউরোপিয়ান, ইন্ডিয়ান খাবার তৈরি প্রণালী, ডেকোরেশন, হাইজিন অ্যান্ড স্যানিটেশন। এসব বিষয়ে দুই মাসের কোর্স, ছয় মাসের এবং এক বছরের সার্টিফিকেট কোর্স করে নিজেকে তৈরি করে নেয়া যায়। তাছাড়া প্রফেশনাল শেফ কোর্স নামের একটি ডিপ্লোমা কোর্স আছে। চাকরির ক্ষেত্রে দীর্ঘমেয়াদি কোর্সগুলো বেশি গ্রহণযোগ্য।

বাংলাদেশে যে কয়েকটি জায়গায় পড়াশোনা করতে পারেন এ বিষয়ে, সেগুলোর মধ্যে রয়েছেঃ

  • ন্যাশনাল হোটেল অ্যান্ড ট্যুরিজম ট্রেনিং ইন্সটিটিউট, বাংলাদেশ পর্যটন, মহাখালী, ঢাকা;
  • বাংলাদেশ হোটেল ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ট্যুরিজম ট্রেনিং ইন্সটিটিউট, গ্রিনরোড, ঢাকা;
  • ইন্সটিটিউট অব ট্যুরিজম অ্যান্ড হোটেল ম্যানেজমেন্ট, ধানমণ্ডি, ঢাকা;
  • বাংলাদেশ স্কিল ডেভেলপমেন্ট ইন্সটিটিউট, ধানমণ্ডি, ঢাকা;
  • রাজমণি ঈশা খাঁ হোটেল ম্যানেজমেন্ট ট্রেনিং কোর্স, কাকরাইল, ঢাকা।

একজন শেফের কাজের ক্ষেত্র ও সুযোগ কেমন?

বাংলাদেশে গত পাঁচ বছরে রেস্টুরেন্ট ও হোটেলের সংখ্যা প্রচুর পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে। খাবারের চর্চাও বাড়ছে দিন দিন। তাই একজন শেফ সহজেই দেশে-বিদেশে বিভিন্ন হোটেল, রেস্টুরেন্ট, রিসোর্ট, গেস্টহাউস, ফাস্ট ফুড শপ, বেকারি, ট্রাভেল এজেন্সি, ট্যুর অপারেটর, বিমান সংস্থা, পর্যটনশিল্প ইত্যাদি প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে পারেন। এক্ষেত্রে ভালো বেতন ছাড়াও খাবার, বিমা, চিকিৎসাভাতা, যাতায়াত ভাতাসহ নানা ধরনের সুযোগ-সুবিধা পেতে পারেন আপনি। বিদেশে শেফদের কদর আরো বেশি। এ পেশায় ভালো দক্ষতা থাকলে কালিনারি জগতের মাস্টার শেফ হবার জন্য সহজে বিদেশে ট্রেনিং নেবার বা কাজ করার সুযোগ পাওয়া যায়।

একজন শেফের মাসিক আয় কেমন?

একজন শেফের মাসিক বেতন প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষে বিভিন্ন রকম হতে পারে। তবে শুরুতে সাধারণত ২০-৩৫ হাজার টাকার মতো আয় করা যায় যায়। অভিজ্ঞতা বাড়তে থাকলে এবং ভালো হোটেলে চাকরি পেলে আয়ের পরিমাণ ৫০ হাজার টাকা থেকে ১ লক্ষ টাকার উপর হতে পারে। এছাড়া দেশের বাইরে চাকরি পেলে আয়ের পরিমাণও বেড়ে যায়।

ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে একজন শেফের?

একজন অভিজ্ঞ শেফ অনায়াসেই দেশে-বিদেশে ভালো হোটেলে চাকরি পেতে পারেন। শুরুতে রেস্টুরেন্টে কাজ করলেও দক্ষ হলে তারকা চিহ্নিত হোটেলে কাজের সুযোগ পাওয়া সম্ভব। সাধারণত ৮-৯ বছরের মধ্যে ভালো ক্যারিয়ার গড়া যায় শেফ হিসাবে।

Loading

2 thoughts on “শেফ

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।