কম্পিউটার অপারেটর

কম্পিউটার অপারেটর: ক্যারিয়ার প্রোফাইল - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

একজন কম্পিউটার অপারেটর বা ডাটা এন্ট্রি অপারেটর সফটওয়্যার ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরনের তথ্য (ডাটা) এন্ট্রির কাজ সম্পাদন করেন। প্রতিষ্ঠানের অধীনে চাকরি ছাড়াও এ পেশায় ফ্রিল্যান্সিং করে ঘরে বসে উপার্জন করার সুযোগ রয়েছে।

এক নজরে একজন কম্পিউটার অপারেটর

সাধারণ পদবী: কম্পিউটার অপারেটর, ডাটা এন্ট্রি অপারেটর
বিভাগ: অফিস সাপোর্ট
প্রতিষ্ঠানের ধরন: সরকারি, বেসরকারি, প্রাইভেট ফার্ম/কোম্পানি
ক্যারিয়ারের ধরন: ফুল-টাইম, পার্ট-টাইম
লেভেল: এন্ট্রি
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য অভিজ্ঞতা সীমা: কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য গড় বেতন: ৳১০,০০০ – ৳১৫,০০০
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য বয়স: কাজসাপেক্ষ
মূল স্কিল: কম্পিউটারের সাধারণ ব্যবহারে দক্ষতা, মাইক্রোসফট অফিস সফটওয়্যারে দক্ষতা, স্প্রেডশিট ব্যবহারে দক্ষতা
বিশেষ স্কিল: নির্ভুল টাইপিং, সময় ব্যবস্থাপনা

একজন কম্পিউটার অপারেটর কোথায় কাজ করেন?

  • সরকারি প্রতিষ্ঠানে, যেখানে ডাটা এন্ট্রির কাজ রয়েছে;
  • ব্যাংক, বীমা ও অন্যান্য অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানে;
  • ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে;
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে;
  • গণমাধ্যমে;
  • বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে, যেখানে ডাটা এন্ট্রির কাজ রয়েছে;
  • তথ্য প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠানে।

উল্লেখ্য যে, একজন কম্পিউটার অপারেটর আউটসোর্সিং ও ফ্রিল্যান্সিংয়ের কাজও করতে পারেন।

একজন কম্পিউটার অপারেটর কী ধরনের কাজ করেন?

  • কম্পিউটারে তথ্য এন্ট্রির কাজ করা;
  • কম্পিউটারে টাইপ করে তথ্য সংযোজন করা বা বিভিন্ন প্রোগ্রামে থাকা তথ্য স্প্রেডশিটে তুলে সংগ্রহ করা;
  • ইন্টারনেট থেকে বিভিন্ন তথ্য খুঁজে সেগুলি এন্ট্রির কাজ করা;
  • সংগৃহীত তথ্য-উপাত্ত যাচাই করা;
  • পুরানো তথ্য-উপাত্ত আপডেট করা;
  • বিভিন্ন ধরনের ডকুমেন্ট তৈরি করা ও গুছিয়ে রাখা।

একজন কম্পিউটার অপারেটরের কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয়?

শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ এ পেশায় কাজ করার জন্য নির্দিষ্ট শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রয়োজন নেই। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার ক্ষেত্রে ন্যূন্যতম উচ্চমাধ্যমিক পাশ করা থাকলে আর কম্পিউটার ও ইন্টারনেট ব্যবহার সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকলে যে কেউ এ ধরনের কাজে যোগ দিতে পারেন।

বয়সঃ প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষে বয়সের সীমা নির্ধারিত হয়।

অভিজ্ঞতাঃ কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষে নির্ধারিত হয়।

একজন কম্পিউটার অপারেটরের কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয়?

  • মাইক্রোসফট অফিসের ভালো ব্যবহার জানা;
  • দ্রুত ও নির্ভুল টাইপিংয়ের ক্ষমতা;
  • ইন্টারনেট থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহের দক্ষতা;
  • ধৈর্যের সাথে কাজের চাপ সামলাতে পারা;
  • নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যে কাজ শেষ করতে পারা।

কোথায় শিখবেন কম্পিউটার অপারেটিং?

এ পেশায় মূল বিষয় দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা। ঘরে বসেই কম্পিউটার ও ইন্টারনেট ব্যবহারের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় কাজ আপনি শিখতে নিতে পারেন। তবে বহু প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে শর্ট কোর্স করে থাকেন অনেকে।

একজন কম্পিউটার অপারেটরের মাসিক আয় কেমন?

এ পেশায় যোগদান করে কমপক্ষে ৳১০,০০০ – ৳১৫,০০০ উপার্জন করা সম্ভব। এছাড়া অনলাইন মার্কেটপ্লেসে ফ্রিল্যান্সিং করে কাজের ধরন ও গ্রাহক অনুযায়ী আয়ের পরিমাণ আরো বেশি হতে পারে। অভিজ্ঞতা যত বাড়বে, এ পেশায় আয়ের সুযোগ তত বেশি।

একজন কম্পিউটার অপারেটরের ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে?

এ পেশায় নির্দিষ্ট কোন ক্যারিয়ার পর্যায় নেই। তবে কোন প্রতিষ্ঠানে যোগদান করলে অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে লিডার হিসেবে নতুন অপারেটরদের দিকনির্দেশনা দেয়ার কাজ পেতে পারেন।

Loading

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।