করোনা পরিস্থিতিতে ক্যারিয়ার প্রস্তুতি

করোনা পরিস্থিতিতে ক্যারিয়ার প্রস্তুতি কীভাবে নেবেন? - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

বর্তমানে করোনাভাইরাসের কারণে আমরা সবাই অস্থির একটা সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। কয়েক দিনের ভেতর চারপাশের স্বাভাবিক জীবনে বড় ধরনের পরিবর্তন এসেছে। আর সবকিছুর মতো চাকরিবাকরির উপরেও পড়েছে এর প্রভাব। ফলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার আগ পর্যন্ত বিভিন্ন খাতে কাজের সুযোগ নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকবে। তবে অনিশ্চিত এ সময়কে ঠিকভাবে ব্যবহার করতে পারলে আপনি ভবিষ্যৎ চাকরি বা ক্যারিয়ার নিয়ে যথেষ্ট প্রস্তুত থাকতে পারবেন। এ ব্যাপারে করণীয় কী? জেনে নিন।

শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের যত্ন নিন।

এ মুহূর্তে আপনার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকা।

কীভাবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে নিজেকে যথাসম্ভব রক্ষা করা যায়, সে সম্পর্কে ইতোমধ্যে সরকারি-বেসরকারি মাধ্যম থেকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হয়েছে ও জনসচেতনতামূলক প্রচারণা চালানো হচ্ছে। সাবান-পানি দিয়ে ঠিকভাবে হাত ধোয়া, অপরিষ্কার হাতে চোখ, মুখ ও নাক স্পর্শ করা থেকে বিরত থাকা এবং হাঁচি-কাশির সময় টিস্যু ব্যবহার করা বা নাক-মুখ আড়াল করা – এ বিধিগুলো ঠিকভাবে মেনে চলুন। প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে যাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

দিন-রাত ঘরে থাকতে থাকতে আর সোশ্যাল মিডিয়াতে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত বিভিন্ন পোস্ট দেখে মনের উপর চাপ তৈরি হতে পারে। এ কারণে মানসিকভাবে সতর্ক থাকা জরুরি।

যত্রতত্র পোস্ট দেখে বিভ্রান্ত বা আতংকিত হবেন না। বরং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) ও অন্যান্য নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে দরকারি তথ্য জানার চেষ্টা করুন। পাশাপাশি পরিবারের সদস্যদের সাথে দূরত্ব বজায় রেখে সময় কাটান। ফোন বা অন্য কোন ডিজিটাল মাধ্যমে আত্মীয়স্বজন আর বন্ধুবান্ধবের খোঁজ নিন।

করোনাভাইরাস নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা হয়তো সম্পূর্ণরূপে চলে যাবে না। কিন্তু সতর্কতার সাথে শারীরিক আর মানসিক স্বাস্থ্যবিধি মানলে আপনি ব্যক্তিগত পর্যায় থেকে পরিস্থিতি সামাল দিতে সক্ষম হবেন। এরপরই চাকরি বা ক্যারিয়ার নিয়ে কিছু করার মনোবল পাবেন। তার আগে নয়।

সিভি আর পোর্টফোলিও আপডেট করুন।

যেকোন চাকরিতে আবেদন করার সময় আপডেটেড সিভি দরকার। অথচ কোন না কোন কারণে হয়তো গত কয়েক মাসে আপনার সিভিতে কোন পরিবর্তন আনেননি। সে কাজটাই করতে পারেন এখন।

ছবি, ব্যক্তিগত তথ্য, শিক্ষাগত যোগ্যতা, কাজের অভিজ্ঞতা, দক্ষতা ও রেফারেন্স – প্রতিটি অংশ ভালোভাবে দেখুন।

সিভির ভাষা আরো ভালো করা যায় কি না, সে ব্যাপারে চেষ্টা করুন। প্রয়োজনে পরিচিত কাউকে সিভি পড়তে দিন। তার পরামর্শ চান।

কোন অংশে কেমন আপডেট দরকার হতে পারে, তা জানার জন্য সিভি রিভিউ করার উপায় নিয়ে জেনে নিতে পারেন।

সিভি বানানো না থাকলে সিভি বানানোর নিয়ম দেখে নিন।

গ্রাফিক ডিজাইন বা ওয়েব ডিজাইনের মতো কাজে যেতে চাইলে প্রফেশনাল পোর্টফোলিও ঠিক করার এখনই সময়। দরকার হলে সময় নিয়ে স্যাম্পল তৈরি করুন, যা আপনার স্কিল বাড়াতে সাহায্য করবে।

স্কিল ডেভেলপমেন্টে জোর দিন।

এ সময় শুধু ঘরে বসে না থেকে আপনার স্কিলের যাচাই-বাছাই করুন। নতুন কিছু শিখুন। নিজের পছন্দের ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করুন।

যেকোন চাকরিতে কাজে আসে এমন কয়েকটি স্কিল দিয়ে শুরু করতে পারেন। যেমনঃ যোগাযোগের দক্ষতা বা রিপোর্ট লেখার দক্ষতা।

ইন্টারনেটের ভালো সুবিধা থাকলে অনলাইন কোর্স করুন। যেমন, কোর্স প্লাটফর্ম বহুব্রীহি করোনা পরিস্থিতির জন্য বিনা মূল্যে এমএস এক্সেল, পাওয়ারপয়েন্ট আর অ্যাডোবি ইলাস্ট্রেটর কোর্স অফার করছে।

চাকরির জন্য বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতা যাচাই করার জন্য আমরা চালু করেছি ক্যারিয়ার টেস্ট। ছোট ছোট পরীক্ষা দেবার মাধ্যমে এখানে আপনি নিজেকে প্রস্তুত করতে পারেন। পরবর্তীতে এমন কিছু পরীক্ষা আমরা নিয়ে আসবো যেগুলো দিয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নিয়োগদাতারা স্কোরের ভিত্তিতে আপনাকে সরাসরি ইন্টারভিউর জন্য ডাকতে পারবেন।

নেটওয়ার্কিং করুন।

প্রফেশনাল জীবনে নেটওয়ার্কিং অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তবে এটা করার জন্য যে আপনাকে ঘরের বাইরে যেতে হবে, তা কিন্তু নয়। এখন প্রায় সবাই ফেসবুকসহ বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেক সময় কাটাচ্ছেন। এ সুযোগকে কাজে লাগান।

ফেসবুকে চাকরি বা ক্যারিয়ার সম্পর্কিত কোন গ্রুপের সদস্য হয়ে থাকলে সেখানে পোস্ট করুন। নিজের পছন্দের চাকরি নিয়ে প্রশ্ন থাকলে অন্যদের সাহায্য চান। সিনিয়র কোন চাকরিজীবীর কাছ থেকে সরাসরি পরামর্শ নিন। গ্রুপের অন্যান্য সদস্যের পোস্টে কমেন্ট করুন। তাদের সাথে পরিচিত হোন। তবে উলটা-পালটা পোস্ট করে বা ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়ে যেন কারো বিরক্তির উদ্রেক না করেন, সে ব্যাপারে নজর দিন।

যদিও আমাদের দেশে ফেসবুক বেশি জনপ্রিয়, প্রফেশনাল নেটওয়ার্কিংয়ের জন্য সবচেয়ে ভালো জায়গা হলো লিংকডইন। সেখানে আপনার অ্যাকাউন্ট না থাকলে বানিয়ে নিতে পারেন। তবে নিয়োগদাতারা যেহেতু সে প্রোফাইল দেখতে পারেন, সেহেতু ভালোভাবে তথ্যগুলো দিন। লিংকডইন প্রোফাইল সাজানোর উপায় জানা থাকলে কাজটা সহজ হবে আপনার জন্য।

চাকরির খবরাখবর রাখুন।

করোনা পরিস্থিতিতে হয়তো বহু প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের সংখ্যা কম থাকবে। এরপরও নিয়মিত খোঁজ নিন। সেটা ফেসবুকের গ্রুপগুলোর মাধ্যমে হোক, বা চাকরি খোঁজার ওয়েবসাইট থেকে হোক। সুযোগ পেলে পুরানো নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিগুলো দেখে দায়িত্ব আর যোগ্যতা সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন। পরীক্ষা প্রস্তুতি নেয়া আর সিভি আপডেট করার ক্ষেত্রেও এটি কাজে দেবে।

ঘরে থাকুন। নিরাপদে থাকুন। ধীরে সুস্থে নিন ক্যারিয়ার প্রস্তুতি।

কেন নেবেন ক্যারিয়ার টেস্ট?

  • সরাসরি ইন্টারভিউর কল পেতে
  • সরাসরি চাকরির পরীক্ষা দিতে
  • চাকরি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে
  • চাকরির জন্য দরকারি স্কিল অর্জন করতে
ক্যারিয়ার টেস্টে যান

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।