ট্রাভেল এজেন্ট

ট্রাভেল এজেন্ট: ক্যারিয়ার প্রোফাইল - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

একজন ট্রাভেল এজেন্ট ভ্রমণ বিষয়ে পরামর্শ দেন, ট্রাভেল প্যাকেজ তৈরি করেন, কোথায় কোন সময় বেড়ানো যায় ও কেমন খরচ এসব বিষয়ে খোঁজ খবর রাখেন, রিজার্ভেশন এবং ভিসার ব্যবস্থা করেন। ভ্রমণের চল অনেক আগে থেকে থাকলেও এখন বন্ধু-বান্ধব,পারিবারিক এমনকি একাকী পর্যটকের সংখ্যা ও অনেক বাড়ছে। সেই সাথে প্রয়োজন বাড়ছে ট্রাভেল এজেন্টদের ।

এক নজরে একজন ট্রাভেল এজেন্ট

সাধারণ পদবী:ট্রাভেল এজেন্ট/রিজার্ভেশন অফিসার/হলিডে এক্সিকিউটিভ/ ট্রাভেল এজেন্সী ম্যানেজার
বিভাগ:ট্যুরিজম ম্যানেজমেন্ট
প্রতিষ্ঠানের ধরন:ট্রাভেল এজেন্সি, হজ এজেন্সি
ক্যারিয়ারের ধরন:ফুল টাইম।
লেভেল:এন্ট্রি
অভিজ্ঞতা সীমা:প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ। অনেক ট্রাভেল এজেন্সিতে ইন্টার্নশীপ এর সুযোগ আছে।
সম্ভাব্য বেতনসীমা:শুরুতে মূল বেতন ১০-১২ হাজার টাকা। তবে ট্রাভেল প্যাকেজ এবং টিকিট সেলিং এর উপর প্রচুর কমিশন পাওয়া যায়।
সম্ভাব্য বয়সসীমা:২২-৪০ বছর
মূল স্কিল:GDS সিস্টেমের উপর কোর্স থাকতে হবে, দক্ষতার সাথে টিকিট-হোটেল বুকিং/ক্যান্সেল/রিফান্ড এর কাজ করতে হবে, গ্রাহকদের চাহিদামত ট্যুর প্যাকেজ ও ভিসা সংক্রান্ত ব্যাপারে সাহায্য করতে হবে।
বিশেষ স্কিল:নির্ভুল হিসাবের সক্ষমতা, এক নাগাড়ে পরিশ্রম করবার মানসিকতা, যে কোন সময়ে গ্রাহকসেবা নিশ্চিত করা, বিভিন্ন এয়ারলাইনস-হোটেল-টুরিস্ট ডেস্টিনেশন নিয়ে ধারণা রাখা, টিকিট-হোটেল রিজারভেশনের নীতিমালা সম্পর্কে জানা।

কোন ধরণের প্রতিষ্ঠানে একজন ট্রাভেল এজেন্ট কাজ করেন?

একজন ট্রাভেল এজেন্টের কাজ ট্যুরিজম ইন্ডাস্ট্রিতে। তারা মূলত ট্রাভেল এজেন্সি গুলোতে কাজ করেন। এছাড়া হজ্ব এজেন্সি গুলোতেও ট্রাভেল এজেন্টরা কাজ করেন।

একজন ট্রাভেল এজেন্ট কী ধরনের কাজ করেন?

  • যে কোন প্রকার টিকিট ও হোটেল বুকিং/ক্যান্সেল/রিফান্ড করা;
  • টিকিট ইস্যু সংক্রান্ত যেকোন ডকুমেন্ট সংরক্ষণ করা;
  • গ্রাহকদের কাছ থেকে সময় মত অর্থ বুঝে নেওয়া;
  • গ্রাহকসেবা নিশ্চিত করা ও গ্রাহকদের সাথে সুসম্পর্ক রাখা;
  • গ্রাহকদের যেকোন অভিযোগের সুরাহা করা;
  • গ্রাহকদের সময় ও বাজেট অনুযায়ী ট্যুরিস্ট ডেস্টিনেশন ও ট্যুর প্যাকেজ সম্বন্ধে ধারণা দেওয়া;
  • গ্রাহকদেরকে ভিসা সম্পর্কিত ব্যাপারে সাহায্য করা;
  • এয়ারলাইনস কোম্পানী, হোটেল গুলোর সাথে সম্পর্ক রাখা এবং তাদের বিভিন্ন অফার সম্পর্কে আপটুডেট থাকা;
  • দৈনিক,সাপ্তাহিক ও মাসিক সেলস রিপোর্ট তৈরি করা।

একজন ট্রাভেল এজেন্টের কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয়?

একজন ট্রাভেল এজেন্টকে অবশ্যই স্নাতক পাশ হতে হবে। অধিকাংশ জব সার্কুলার যেকোন বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রীধারীদের জন্য উন্মুক্ত হলেও অনেকক্ষেত্রে বিবিএ ডিগ্রীধারীদের প্রাধান্য দেওয়া হয়। যেমন ফেয়ার ট্রাভেল এন্ড ট্যুরস টিকিট রিজারভেশন এন্ড ট্যুরস অফিসার পদের জন্য বিবিএ ডিগ্রী চেয়েছে ।
ট্রাভেল এন্ড ট্যুর ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কিত যেকোন সার্টিফিকেট বা দ্যা ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট এ্যাসোসিয়েশন (IATA ) স্বীকৃত যে কোন ইন্সটিটিউট থেকে ফেয়ারস এন্ড টিকেটিং এর উপর ডিপ্লোমা ডিগ্রী থাকলে যে কোন স্থানে অগ্রাধিকার পাওয়া যায়

একজন ট্রাভেল এজেন্টের কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয়?

  • অবশ্যই গ্লোবাল ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম(GDS) বিশেষ করে GALELIO,SABRE ও AMADUES অপারেট করতে জানতে হবে;
  • ইংরেজী ও বাংলা উভয় ভাষায় পারদর্শী হতে হবে;
  • স্পষ্ট ভৌগোলিক জ্ঞান থাকতে হবে;
  • ভালো কনভিন্সিং ও নেগোসিয়েশন স্কিল থাকতে হবে;
  • বিভিন্ন দেশের ভিসা, ভ্রমন সংক্রান্ত নীতিমালা সম্পর্কে জানতে হবে;
  • এয়ারলাইনস কোম্পানী ও হোটেল গুলোর রিজার্ভেশন সংক্রান্ত নিয়ম সম্পর্কে অবগত থাকতে হবে;
  • প্রচুর পরিশ্রমী ও সময়ানুবর্তি হতে হবে। গ্রাহকদেরকে সময়মত সেবা দিতে হবে;

ট্রাভেল এজেন্ট হতে চাইলে কোথায় পাবেন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা?

অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস বাংলাদেশ (ATAB) ট্যুরিজম ট্রেনিং ইন্সটিটিউটে এয়ার টিকেটিং এন্ড ট্রাভেল এজেন্সি অপারেশনস এর উপর ডিপ্লোমা ডিগ্রী দেওয়া হয়। বাংলাদেশ এয়ারলাইনস ট্রেনিং সেন্টার, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনে ট্রাভেল এজেন্টদের জন্য ট্রাভেল এজেন্সি অপারেশনের উপর কোর্স করানো হয়। গ্লোবাল ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম (GDS) AMADEUS এবং SABRE এর ট্রেনিং সেন্টার সহ অসংখ্য বেসরকারি ট্রেনিং সেন্টারে GDS সিস্টেম, টিকেট ফেয়ার এন্ড রিজার্ভেশন সিস্টেমের উপর কোর্সের সুযোগ আছে।

একজন ট্রাভেল এজেন্টের কাজের ক্ষেত্র এবং সুযোগ কেমন?

দিন দিন ভ্রমণপিপাসু মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। বাংলাদেশে বিদেশী পর্যটকের সংখ্যা না বাড়লেও দেশের অভ্যন্তরীণ পর্যটন খাতে এক নীরব বিপ্লব এসেছে। বিভিন্ন দেশের সাথে বিমান যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপন হওয়ায় এখন প্রচুর মানুষ বিদেশে ঘুরতে যাচ্ছে। সেই সাথে ব্যবসায়িক কাজে বিদেশে যাওয়াও প্রচুর বেড়েছে। এ চাহিদার কথা মাথায় রেখে দেশে এখন ২ হাজারের বেশি ট্রাভেল এজেন্সি আছে। আর প্রায় ১৩০০ লাইসেন্স প্রাপ্ত হজ্ব এজেন্সি রয়েছে। এত বিপুল সংখ্যক এজেন্সির জন্য প্রচুর ট্রাভেল এজেন্ট প্রয়োজন।

একজন ট্রাভেল এজেন্টের মাসিক আয় কেমন?

যে কোন ট্রাভেল এজেন্সীতে স্থায়ীভাবে নিয়োগ পেতে হলে প্রয়োজন অভিজ্ঞতা। এজন্য ট্রাভেল এজেন্সীতে ইন্টার্নশীপ করতে হয়। ইন্টার্নশীপে মাসিক ৫-৭ হাজার টাকা পাওয়া সম্ভব ইন্টার্নশীপ শেষে কোন ট্রাভেল এজেন্সীতে ১০-১২ হাজার টাকা বেতনে চাকুরী পাওয়া যায়। কয়েক বছরের অভিজ্ঞতা থাকলে বেতন ২০-৪০ হাজার টাকা হয়। যেমন আকাশবাড়ী হলিডেইজে ৫ বছরের অভিজ্ঞ ট্রাভেল এজেন্সী ম্যানেজারের পদের জন্য মাসিক ৩৫-৪০ হাজার টাকা বেতনে সার্কুলার দিয়েছে । একজন ট্রাভেল এজেন্টের সেলস এর উপর এজেন্সী তাকে কমিশন দেয়। অনেকক্ষেত্রে এ কমিশন মুল বেতনের দেড় থেকে দ্বিগুন হয়। কাজেই ট্রাভেল এজেন্ট হিসেবে মাসিক আয় নির্ভর করে পরিশ্রম ও কাস্টমার হ্যান্ডেলিং এর উপর।

ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে একজন ট্রাভেল এজেন্টের?

বাংলাদেশে ট্রাভেল এজেন্টের চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। কাজেই প্রতিযোগিতার এই বাজারে নিজেকে যোগ্য হিসেবে গড়ে তুললে এ পেশায় ক্যারিয়ার সুনিশ্চিত। তবে এ পেশায় অনেক পরিশ্রমী হতে হবে। রিজার্ভেশন এবং টিকিট ফেয়ারের জ্ঞান ছাড়াও ঘোরাঘুরির বাস্তব অভিজ্ঞতা এবং বিজনেস প্ল্যানিং এর দক্ষতা থাকলে এজেন্সীর ট্যুর প্যাকেজ প্ল্যানিং শাখায় আরো বড় পদে কাজ করা সম্ভব। এই কাজে দেশ বিদেশের বিভিন্ন স্থান ঘুরে হোটেল, ট্রান্সপোর্ট সার্ভিসের সাথে চুক্তি করতে হয়। এর ফলে অনেক অভিজ্ঞতার সঞ্চয় হয়।

বিশেষ কৃতজ্ঞতা

আব্দুল্লাহ আল মামুন, রিজার্ভেশন অফিসার, ইউনাইটেড কনসালটেন্সি এন্ড ট্যুরস

One thought on “ট্রাভেল এজেন্ট

  1. i am so excited to got a job. I am a student of tourism and hospitality managment. If you acpect my request, you will contact me.

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।