নিউজ এডিটর

নিউজ এডিটর বা সংবাদ সম্পাদক: ক্যারিয়ার প্রোফাইল - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

একজন নিউজ এডিটর সাংবাদিক ও অন্যান্য সূত্র থেকে প্রাপ্ত খবর যাচাই বাছাই করে প্রচারের জন্য প্রস্তুত করেন। একজন নিউজ এডিটরই পারেন একটি সংবাদকে গণমাধ্যমে নির্ভুল এবং চমৎকারভাবে প্রচার ও প্রকাশ করতে।

এক নজরে একজন নিউজ এডিটর

সাধারণ পদবী:নিউজরুম এডিটর/ সাবএডিটর/ ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট
বিভাগ:প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া
প্রতিষ্ঠানের ধরন:টিভি চ্যানেল, পত্রিকা, ম্যাগাজিন, রেডিও
ক্যারিয়ারের ধরন:ফুল টাইম
লেভেল:এন্ট্রি/মিড
অভিজ্ঞতা সীমা:কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ
সম্ভাব্য বেতনসীমা:শিক্ষানবিস নিউজরুম এডিটরের মাসিক বেতন ৮-১৫ হাজার টাকা। ১-২ বছর পর নিউজরুম এডিটর হলে বেতন ২০-৩০ হাজার টাকা
সম্ভাব্য বয়সসীমা:প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ। তবে ২৫-৩৫ বছর এর মধ্যে চাওয়া হয়
মূল স্কিল:ভাষার উপর দক্ষতা, অনুবাদের দক্ষতা, চমকপ্রদ সংবাদ শিরোনাম তৈরির দক্ষতা
বিশেষ স্কিল:পরিশ্রমী, সময়ানুবর্তি, দলগতভাবে কাজ করার ক্ষমতা, সূক্ষভাবে যাচাই করার সক্ষমতা

কোন ধরণের প্রতিষ্ঠানে একজন নিউজ এডিটর কাজ করেন?

একজন নিউজ এডিটর প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়াতে কাজ করেন। রাষ্ট্রায়ত্ত টিভি চ্যানেল বিটিভির পাশাপাশে দেশে মোট ৪৪ টি বেসরকারি টিভি চ্যানেল আছে। এর পাশাপাশি দেশে নিবন্ধিত পত্রিকার সংখ্যা ৩ হাজার ২৫ টি এবং ২ হাজার ১৮ টি অনলাইন পত্রিকা নিবন্ধনের জন্য অপেক্ষমান আছে। দেশে দিন দিন বাড়ছে এফ এম রেডিওর চল। এসব টিভি চ্যানেল, রেডিও এবং সংবাদপত্রের জন্য প্রচুর নিউজ এডিটর প্রয়োজন। টিভি চ্যানেল গুলোতে সাধারনত শিক্ষানবিস নিউজরুম এডিটর,নিউজরুম এডিটর ও সিনিয়র নিউজরুম এডিটর ও জয়েন্ট নিউজ এডিটর পদে কাজের সুযোগ আছে। পত্রিকাগুলোতে মফস্বল সম্পাদক, নগর সম্পাদক, ফিচার সম্পাদক, বার্তা সম্পাদক, উপ সম্পাদক, সহ সম্পাদক পদে মিড লেভেলের পদে কাজের সুযোগ রয়েছে।

একজন নিউজ এডিটর কী ধরনের কাজ করেন?

ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে শুরুতে শিক্ষানবিস নিউজরুম কাজ করতে হয়। একজন শিক্ষানবিশ এডিটরকে ডেস্ক ইনচার্জ প্রদত্ত সংবাদ গুলোকে দর্শকের কথা মাথায় রেখে সাজাতে হয়। এর পর স্থায়ী হলে নিউজ এডিটরের পদ পাওয়া যায়। নিউজ এডিটর শিক্ষানবিস এডিটরের প্রস্তুতকৃত সংবাদ গুলো যাচাই করেন এবং সংবাদের সঠিক পরিবেশন যাচাই করেন। আর একজন সিনিয়র নিউজ এডিটর টিভি চ্যানেলে সম্প্রচারের জন্য সংবাদগুলো মনোনীত করেন ।
প্রিন্ট মিডিয়াতে সম্পাদকীয় বিভাগে অনেক পর্যায়ে সম্পাদকরা কাজ করেন। সম্পাদক বা এডিটর একটি পত্রিকার নির্বাহী। পত্রিকা গুলোতে শুরুতে শিক্ষানবিস সাব এডিটর হিসেবে কাজের সুযোগ থাকে। এর পর সাব এডিটর হিসেবে স্থায়ীভাবে কাজ করতে হয়। পত্রিকার বিভিন্ন শাখা যেমন খেলাধুলা, নগর, গ্রাম, ফ্যাশন, কৃষি, আন্তর্জাতিক ইত্যাদি পাতার জন্য আলাদা সাব-এডিটর কাজ করেন।
নিউজ এডিটরদের সাধারণ কাজের মধ্যে পরে-

  • কোন লিখিত সংবাদ বা আর্টিকেল এর বানান, ব্যাকরণ এর ক্রুটি সংশোধন করা;
  • অনেকসময় আর্টিকেল বা সংবাদ অনুবাদ করা;
  • সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে চমৎকার ভাষাশৈলীর ব্যবহার;
  • তথ্যগত ভুল সংশোধন করা।

একজন নিউজ এডিটরের কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয়?

একজন নিউজ এডিটরকে অবশ্যই স্নাতক ডিগ্রীধারী হতে হবে। নিউজ এডিটিং এ দক্ষতা ও জ্ঞান থাকলে যে কোন বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রীধারীরাই এ পদে কাজ করতে পারেন। তবে বড় মাপের প্রতিষ্ঠানে সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ, মিডিয়া স্টাডিজ, ইংরেজী, অর্থনীতির শিক্ষার্থীদের প্রাধান্য দেওয়া হয়। যেমন দীপ্ত টিভিতে নিউজ এডিটরের যোগ্যতা হিসেবে জার্নালিজম এন্ড ম্যাস কমিউনিকেশনে স্নাতকোত্তর/স্নাতক ডিগ্রী চাওয়া হয়েছে।

একজন নিউজ এডিটরের কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয়?

  • ভাষার উপর ভালো দক্ষতা থাকতে হবে;
  • ভাষাশৈলী, সাহিত্য, ব্যাকরণ নিয়ে জ্ঞান থাকতে হবে;
  • একই সংবাদ থেকে নানান আঙ্গিকে উপস্থাপনের সক্ষমতা থাকতে হবে;
  • পত্রিকায় কোন বিভাগে সম্পাদনার কাজ করতে চাইলে সে বিষয়ে অভিজ্ঞ হতে হবে;
  • দ্রুত কাজ করার সামর্থ্য থাকতে হবে;
  • সাংবাদিকদের কাছ থেকে কাজ আদায় করে নিতে হবে এবং দলগত কাজের মানসিকতা থাকতে হবে;
  • ইংরেজী মাধ্যমের দৈনিকে কাজ করতে চাইলে অবশ্যই ইংরেজীতে দক্ষ হতে হবে;

কোথায় পড়শুনা করবেন নিউজ এডিটর হতে চাইলে?

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ। এছাড়া প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি, ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটি, ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি, মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ(AIUB),ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টসেও(ULAB) বিষয়টি মিডিয়া স্টাডিজসহ বিভিন্ন নামে পড়ানো হচ্ছে। এছাড়া জাতীয় গণমাধ্যম ইন্সটিটিউট, প্রেস ইন্সটিটিউট অব বাংলাদেশ, সেন্টার ফর মিডিয়া রিসার্চ এন্ড ট্রেনিং, সেন্টার ফর এডভ্যান্সড মিডিয়া, জার্নালিজম ইন্সটিটিউট অব বাংলাদেশে প্রশিক্ষণের সুযোগ আছে।

একজন নিউজ এডিটরের মাসিক আয় কেমন?

প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে মাসিক উপার্জন প্রতিষ্ঠানের উপর নির্ভর করে। চ্যানেল আই, মাছরাঙা, এনটিভি কিংবা প্রথম আলো, ডেইলী স্টারের মত পত্রিকায় শিক্ষানবিস হিসেবে কাজ করলে ১২-১৮ হাজার টাকা পাওয়া সম্ভব। মাঝারি আকারের প্রতিষ্ঠানে বেতন মাসে ৪-১০ হাজার টাকা। এডিটর হিসেবে স্থায়ীভাবে কাজ করলে ২০-৩০ হাজার টাকা মাসিক বেতন দেয়।তবে যেসব পত্রিকার আয় কম সেসব পত্রিকায় জাতীয় মজুরী বোর্ড এর নীতিমালা অনুযায়ী বেতন দেওয়া হয়। আর ইনক্রিমেন্ট প্রতিষ্ঠানভেদে আলাদা। মাছরাঙা টেলিভিশন কর্মীদের প্রতি বছর ১৫% হারে ইনক্রিমেন্ট দেয়। তবে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানে বেতন বৃদ্ধির নির্দিষ্ট নীতিমালা নেই।

ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে একজন নিউজ এডিটরের?

শিক্ষানবিস নিউজ এডিটর হিসেবে ঢুকে দক্ষতা ও অভিজ্ঞতাবলে সিনিয়র নিউজ এডিটর বা চীফ নিউ এডিটর হওয়া সম্ভব। সিনিয়র নিউ এডিটর সংবাদ বিভাগের গুর দায়িত্ব পালন করেন। তবে প্রতিষ্ঠানের নির্বাহী পদে যেতে চাইলে নিউজ এডিটিং এর দক্ষতায় যথেষ্ট নয়। এক্ষেত্রে নির্বাহী দায়িত্ব, ব্যবসায়িক পরিকল্পনায়ও ভালো হতে হবে। এছাড়া প্রতিটি ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার নিজস্ব এজেন্ডা ও নীতি থাকে। সে অনুযায়ী কাজ না করলে ওই প্রতিষ্ঠানে সাফল্য পাওয়া সম্ভব না।

বিশেষ কৃতজ্ঞতা

মুস্তাফিজ গনী, ব্রডক্যাস্ট জার্নালিস্ট, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভি

Loading

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।