বিসিএস প্রিলিমিনারি প্রস্তুতি: ইংরেজি

বিসিএস প্রিলিমিনারি প্রস্তুতি: ইংরেজি - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় ইংরেজি বিষয়টির জন্য ৩৫ নম্বর বরাদ্দ থাকে। একটু কৌশলে প্রস্তুতি নিলে এ অংশে আপনি ভালো নম্বর নিশ্চিত করতে পারবেন। এ লেখা থেকে জেনে নিন ইংরেজি অংশের প্রস্তুতি কীভাবে নিতে পারেন।

বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ইংরেজি অংশকে মূলত দুই ভাগে ভাগ করা যায়:

ইংরেজি বিষয়ের ভাগবরাদ্দকৃত নম্বর
ইংরেজি গ্রামার২০
ইংরেজি সাহিত্য১৫

বিসিএস প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় ইংরেজি অংশের জন্য কী পড়তে হবে?

ইংরেজি গ্রামারের জন্য যেসব বিষয় পড়তে হবে, সেগুলো হলো:

  • ইংরেজি ভোকাবুলারি থেকে প্রশ্ন আসে। সাথে ইংরেজি শব্দের Synonyms, Antonyms, Spelling, Prefixes, Suffixes সম্পর্কিত প্রশ্ন আসতে পারে;
  • Parts of Speech থেকে Noun, Pronoun, Adjective, Verb, Adverb, Preposition – এ বিষয়গুলোর উপর বেশি গুরুত্ব দিন;
  • Noun Clause, Adverbial Clause, Adjective Clause থেকে সাধারণত প্রশ্ন আসে;
  • Idioms and Phrases;
  • Correction and Transformation – এ দুইটি বিষয় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। শুধু প্রিলিমিনারি নয়, বরং লিখিত পরীক্ষার জন্যও। Tense, Subject Verb Agreement, Sentence Correction, Narration, Right Forms of Verbs, Voice ইত্যাদি অংশ থেকে প্রশ্ন করা হয়ে থাকে;
  • Gender ও Number – এ অংশ থেকে ব্যতিক্রমী নিয়মের উপরে সাধারণত প্রশ্ন আসে;
  • ইংরেজি গ্রামারের বিভিন্ন বিষয়ের ব্যতিক্রমী নিয়মগুলোর উপর নজর রাখা উচিত।

ইংরেজি সাহিত্যের জন্য যেসব বিষয় পড়তে হবে:

  • বাংলাদেশে পরিচিত ইংরেজি সাহিত্যিকদের সম্পর্কে প্রশ্ন আসে। তাঁদের বিখ্যাত উক্তি, আলোচিত সাহিত্যকর্ম,জীবনী, উপাধি ইত্যাদি;
  • ইংরেজি সাহিত্যের বিকাশকে কয়েকটি যুগে ভাগ করা হয়েছে। যেমন, রেনেসাঁ পিরিয়ড, রোমান্টিক পিরিয়ড ইত্যাদি। এসব যুগের সাহিত্যকর্মের ধরন ও আলোচিত লেখক নিয়ে প্রশ্ন আসে;
  • সাহিত্যের নানা পুরস্কারপ্রাপ্ত লেখক ও তাঁদের বই। যেমন, নোবেল সাহিত্য পুরস্কার কিংবা বুকার পুরস্কার ইত্যাদি;
  • বিভিন্ন দেশের জাতীয় কবি/লেখক;
  • ইংরেজি সাহিত্যের মহাকাব্য, শোককাব্য ইত্যদি;
  • সাহিত্য সংক্রান্ত বিশেষ কিছু শব্দ বা টার্ম নিয়ে জানতে হবে। যেমন, Metaphor, Allegory ইত্যাদি।

বিসিএস প্রিলিমিনারির ইংরেজি গ্রামারের উপর প্র্যাকটিস টেস্ট দিন

এটি পূর্ণাঙ্গ কোন পরীক্ষা নয়। কিন্তু নিজের প্রস্তুতি সম্পর্কে একটি ধারণা পাবেন এ প্র্যাকটিস টেস্টের মাধ্যমে।

টেস্টে যান

কেন নেবেন ক্যারিয়ার টেস্ট?

  • সরাসরি ইন্টারভিউর কল পেতে
  • সরাসরি চাকরির পরীক্ষা দিতে
  • চাকরি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে
  • চাকরির জন্য দরকারি স্কিল অর্জন করতে
ক্যারিয়ার টেস্টে যান

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।