ব্র্যাকে চাকরি: প্রার্থী হিসাবে যে ৫টি বিষয়ে খেয়াল রাখবেন

বাংলাদেশের সবচেয়ে পরিচিত প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি হলো ব্র্যাক (BRAC)। বিশ্বের সবচেয়ে বড় বেসরকারি এ উন্নয়ন সংস্থায় প্রতি বছর বিভিন্ন পদে কর্মী নেয়া হয়। সামাজিক উন্নয়নের উপর কাজ করে পেশাদারি দক্ষতা অর্জনের জন্য ব্র্যাকে চাকরি আপনার জন্য বড় একটি সুযোগ হতে পারে। তবে এখানে যোগ দেয়ার আগে বিশেষ প্রস্তুতি নিতে হবে আপনাকে। এবারের লেখায় সে সম্পর্কে জেনে নেবো আমরা। এ বিষয়গুলো সংস্থাটির কমবেশি সব নিয়োগ প্রক্রিয়ার বেলায় প্রযোজ্য।

১. ব্র্যাক ও এর কাজের ক্ষেত্রগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন।

ব্র্যাকে আবেদন করার আগে এ সংস্থার উপর পড়াশোনা করুন। যে পদের জন্য আবেদন করছেন, সে পদের কাজ কেমন হতে পারে – সে বিষয়ে আপনাকে জেনে নিতে হবে।

ব্র্যাক ইয়াং প্রফেশনাল প্রোগ্রামের মাধ্যমে নিয়োগ পাওয়া ইরফান মোঃ আবিরের মতে, এ সংস্থায় কাজ করতে হলে সুবিধাবঞ্চিত মানুষের সাথে ও গ্রামীণ পরিবেশে কাজ করার মানসিকতা থাকা জরুরি। যেহেতু ঢাকার বাইরের বিভিন্ন জায়গায় আপনাকে কাজ করতে হবে, সেহেতু আবেদন করার আগেই এ ব্যাপারে প্রস্তুতি নিয়ে রাখুন।

২. বৈষম্যমূলক মনোভাব এড়িয়ে চলুন।

ব্র্যাক যেহেতু একটি উন্নয়ন সংস্থা, সেহেতু বৈষম্যমূলক মানসিকতা বা আচরণ এখানে কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে নারীরা কর্মক্ষেত্রে সাধারণত বেশ কিছু সমস্যার মুখোমুখি হন। ব্র্যাক এ সমস্যাগুলোকে খুব গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করে ও নারী-পুরুষের জন্য নিরাপদ ও কর্মপোযোগী পরিবেশ তৈরি করার প্রচেষ্টা রাখে। তাই আপনার সহকর্মীদের প্রতি সহযোগিতামূলক মনোভাব থাকা গুরুত্বপূর্ণ। যেমন, ব্র্যাকের নারী কর্মীরা মাতৃত্বকালীন ছুটিসহ কিছু সুযোগ-সুবিধা পান। এক্ষেত্রে আপনাকে তাদের সমস্যা বা পরিস্থিতি অনুধাবন করতে হবে।

৩. গোছানো সিভি জমা দিন।

ব্র্যাকে ই-রিক্রুটমেন্টের একটি প্রক্রিয়া রয়েছে। এক্ষেত্রে এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে আপনাকে একটি ই-সিভি জমা দিয়ে রাখতে হবে। তাই নির্দেশনা অনুযায়ী আপনার সিভি প্রস্তুত রাখুন। উল্লেখ্য যে, ব্র্যাকের পোর্টালে আপনার অ্যাকাউন্ট থাকলে তা বিভিন্ন নিয়োগের বেলায় ব্যবহার করতে পারবেন।

৪. লিখিত পরীক্ষার বিষয়গুলোর উপর প্রস্তুতি নিন।

ব্র্যাকের সব নিয়োগ পরীক্ষাতেই কমবেশি একটি লিখিত পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হয়। তবে এ পরীক্ষায় আপনি বিশ্ববিদ্যালয়ে কোন বিষয়ে পড়াশোনা করেছেন অথবা সে ব্যাপারে ঠিক কতটুকু জানেন, তা মুখ্য নয়। বরং আপনার ইংরেজি, গণিত ও যৌক্তিক বিশ্লেষণের দক্ষতা যাচাই করা হয়। তাই এ বিষয়গুলোর উপর পড়াশোনা করুন।

৫. ভুল থেকে শেখার মানসিকতা পোষণ করুন।

ব্র্যাকের ইন্টারভিউ তথা মৌখিক পরীক্ষার সময় শান্ত ও আত্মবিশ্বাসী থাকাটা বেশ গুরুত্বপূর্ণ। অপেক্ষাকৃত জটিল প্রশ্নগুলো শুনে ঘাবড়ে গেলে অথবা বেশি উত্তেজিত হয়ে গেলে তা আপনার জন্য সমস্যা তৈরি করতে পারে। ইরফান মোঃ আবির মনে করেন যে, একরোখা লোক নেবার ব্যাপারে ব্র্যাক খুব একটা আগ্রহী নয়। বরং এর নিয়োগকর্তারা চান এমন কাউকে, যিনি ভুল থেকে শিখতে পারবেন। তাই আপনার কথাবার্তায় ইতিবাচক মনোভাব ফুটিয়ে তুলুন। কাজ শেখার আগ্রহকে তুলে ধরুন।

বিশেষ কৃতজ্ঞতা

  • নাফিসা ইসলাম, সিনিয়র অফিসার, এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর’স অফিস, ব্র্যাক।
  • ইরফান মোঃ আবির, ম্যানেজমেন্ট প্রফেশনাল স্টাফ ও সিনিয়র এক্সিকিউটিভ (মে ২০১৬ – আগস্ট ২০১৮), ব্র্যাক।
  • কামরুল হোসেন শুভ, স্টাফ রিসার্চার (এপ্রিল ২০১৭ – ডিসেম্বর ২০১৭), ব্র্যাক।
  • আকিব মোঃ সাতিল, প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর (ডিসেম্বর ২০১৭ – নভেম্বর ২০১৯), ব্র্যাক।

35 thoughts on “ব্র্যাকে চাকরি: প্রার্থী হিসাবে যে ৫টি বিষয়ে খেয়াল রাখবেন”

    • আপনি ব্র্যাকে কোন ধরনের চাকরি করতে চান? (এ কন্টেন্ট ব্র্যাক বা বিভিন্ন এনজিওতে কাজ করার জন্য একটা গাইডলাইন মাত্র। কোন নির্দিষ্ট চাকরির বিজ্ঞাপন করা হচ্ছে না এখানে।)

      Reply
    • প্রগতির ঠিক কোন পোস্টের জন্য প্রস্তুতি নিতে চান আপনি?

      Reply
  1. ভাইয়া এনজিও লিখিত পরীক্ষার প্রশ্ন আপলোড করুন!!!

    Reply
    • অনুমতি ছাড়া আমরা কোন এনজিওর লিখিত পরীক্ষার প্রশ্ন সরাসরি আপলোড করতে পারবো না।

      Reply
  2. ব্র্যাকে চাকরি করতে সঠিক মনোভাব নিয়ে আমি আগ্রহী।

    Reply
  3. YPP এর written question patten কেমন হয়? কোন কোন সাবজেক্ট এর উপর question করা হয়?

    Reply

Leave a Comment