মিডওয়াইফ

মিডওয়াইফ বা ধাত্রী: ক্যারিয়ার প্রোফাইল - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

একজন মিডওয়াইফ বা ধাত্রী গর্ভাবস্থায়, সন্তান প্রসবের সময় ও সন্তান প্রসবের পর নারী ও সদ্যোজাত শিশুকে স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে থাকেন। তিনি গর্ভাবস্থায় নারীদেরকে স্বাস্থ্য ও শিশুর পরিচর্যা বিষয়ক পরামর্শও দেন।

এক নজরে একজন মিডওয়াইফ

সাধারণ পদবী: মিডওয়াইফ, ধাত্রী
বিভাগ: স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা
প্রতিষ্ঠানের ধরন: সরকারি, বেসরকারি, প্রাইভেট ফার্ম
পেশার ধরন: ফুল-টাইম, পার্ট-টাইম
লেভেল: প্রযোজ্য নয়
সম্ভাব্য অভিজ্ঞতা সীমা: ০ – ২ বছর
সম্ভাব্য গড় বেতন: ৳১০,০০০ – ৳১৬,০০০
সম্ভাব্য বয়স সীমা: ২০ – ২৫ বছর
মূল স্কিল: গর্ভবতী নারী ও সদ্যোজাত শিশুর স্বাস্থ্য সংক্রান্ত ধারণা, প্রসবকালীন সমস্যার চিকিৎসা সম্পর্কিত জ্ঞান, সাধারণ স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কিত সচেতনতা
বিশেষ স্কিল: সেবার মানসিকতা থাকা, ধৈর্য, মানসিক চাপ সামলানোর ক্ষমতা

একজন মিডওয়াইফ কোথায় কাজ করেন?

  • সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে
  • বেসরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে

একজন মিডওয়াইফের কাজ কী?

  • গর্ভবতী নারীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা
  • গর্ভবতী নারীকে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে অবহিত করা
  • গর্ভাবস্থায় নারীর কোন সমস্যা দেখা দিলে তার প্রাথমিক চিকিৎসা করা ও প্রয়োজনে গাইনি ডাক্তারের কাছে পাঠানোর ব্যবস্থা করা
  • সন্তান প্রসবের আগে গর্ভবতী নারীকে মানসিকভাবে প্রস্তুত করা
  • সন্তান প্রসবের সময় বা গর্ভপাতের ক্ষেত্রে গাইনি ডাক্তারের নির্দেশনা অনুযায়ী সাহায্য করা
  • সদ্যোজাত শিশুর প্রাথমিক যত্ন নিশ্চিত করা
  • সদ্যোজাত শিশুর যত্ন কীভাবে নিতে হবে, সে ব্যাপারে মা ও তার পরিবারকে পরামর্শ দেয়া

একজন মিডওয়াইফের কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয়?

শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ যেকোন সরকারি বা বেসরকারি নার্সিং কলেজ বা নার্সিং ইন্সটিটিউট থেকে ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি বা বিএসসি ইন মিডওয়াইফারি কোর্স সম্পন্ন করে যে কেউ এ পদে চাকরির আবেদন করতে পারেন। প্রতিষ্ঠানভেদে বিশেষায়িত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে পরে মিডওয়াইফদের আরো দক্ষ করে তোলা হয়।

একজন মিডওয়াইফের কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয়?

  • গর্ভবতী নারী ও সদ্যোজাত শিশুর স্বাস্থ্য সম্পর্কিত জ্ঞান
  • প্রসবকালীন সমস্যার চিকিৎসা সম্পর্কিত জ্ঞান
  • সাধারণ স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কিত সচেতনতা
  • মানসিক চাপ সামলানোর দক্ষতা

কোথায় পড়বেন মিডওয়াইফারি?

  • সরকারী নার্সিং কলেজ
  • নার্সিং ইন্সটিটিউট
  • মিডওয়াইফারি ইন্সটিটিউট

বাংলাদেশ সরকার বিভিন্ন জেলায় ৩১টি সরকারি নার্সিং কলেজ ও নার্সিং ইনস্টিটিউটে ডিপ্লোমা ও ব্যাচেলর ইন মিডওয়াইফারি কোর্স চালু করেছে। এসব প্রতিষ্ঠান থেকে ৩ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা কোর্স করে আপনি এ পেশায় যোগ দিতে পারবেন। এছাড়া উচ্চশিক্ষা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কর্মক্ষেত্রে দক্ষতা বাড়ানোর সুযোগ রয়েছে।

একজন মিডওয়াইফের মাসিক আয় কেমন?

জাতীয় বেতন স্কেল অনুযায়ী এ পেশায় বেতন ৳১৬,০০০ – ৳৩৮,৬৪০ পর্যন্ত হতে পারে। এছাড়াও রয়েছে অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা।

বেসরকারি স্বাস্থ্য ও চিকিৎসাকেন্দ্রে মাসিক বেতন ৳১০,০০০ – ৳১৫,০০০ হয়।

একজন মিডওয়াইফের ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে?

এ পেশায় নির্দিষ্ট কোন পদবিন্যাস নেই। তবে ৮ – ১০ বছরের অভিজ্ঞতা অর্জনের পর চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিযুক্ত মিডওয়াইফদের সুপারভাইজার হিসাবে নিয়োগ পেতে পারেন।

কেন নেবেন ক্যারিয়ার টেস্ট?

  • সরাসরি ইন্টারভিউর কল পেতে
  • সরাসরি চাকরির পরীক্ষা দিতে
  • চাকরি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে
  • চাকরির জন্য দরকারি স্কিল অর্জন করতে
ক্যারিয়ার টেস্টে যান

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।