মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ

মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ: ক্যারিয়ার প্রোফাইল - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ বা চিকিৎসা প্রতিনিধিরা ফার্মাসিউটিক্যাল/মেডিকেল কোম্পানি ও স্বাস্থ্য সেবাভিত্তিক পেশার মধ্যে যোগাযোগের মূল প্রতিনিধি। যে কোন ফার্মাসিউটিক্যাল/মেডিকেল কোম্পানির পণ্য প্রচার ও বিক্রির কাজ করেন তারা। তাদের গ্রাহক তালিকার মধ্যে ডাক্তার, নার্স ও ফার্মাসিস্ট উল্লেখযোগ্য।

এক নজরে একজন মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ

সাধারণ পদবী: মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ, মেডিকেল প্রমোশন অফিসার, মেডিকেল ইনফরমেশন অফিসার
বিভাগ: স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা
প্রতিষ্ঠানের ধরন: সরকারি, আধা সরকারি, প্রাইভেট ফার্ম/কোম্পানি
ক্যারিয়ারের ধরন: ফুল টাইম
লেভেল: এন্ট্রি, মিড
অভিজ্ঞতা সীমা: কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য বেতন সীমা: ৳১০,০০০ – ৳২৫, ০০০
সম্ভাব্য বয়স সীমা: ২৫-৩০ বছর
মূল স্কিল: বিক্রয় দক্ষতা, যোগাযোগের দক্ষতা
বিশেষ স্কিল: বাণিজ্যিক দক্ষতা, পরিপক্কতা, সাংগঠনিক দক্ষতা

কোন ধরনের শিল্প বা ইন্ডাস্ট্রিতে একজন মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ কাজ করে থাকেন?

স্বাস্থ্য সেবাভিত্তিক পণ্য বিক্রয় করে, এমন যে কোন প্রতিষ্ঠানে এ পেশা বিদ্যমান। সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল, ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি ও সীমিত পরিসরে সশস্ত্র বাহিনীর মেডিকেল বিভাগে কাজ করার সুযোগ রয়েছে মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভদের।

বিগত দুই দশকে বাংলাদেশে মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভদের চাহিদা ব্যাপক হারে বেড়ে গিয়েছে। প্রায় সময় ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিগুলো এ খাতে নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দিয়ে থাকে। বিজ্ঞপ্তিতে ব্যবহৃত উপাধিগুলোর মধ্যে রয়েছেঃ

  • মেডিকেল সার্ভিসেস অফিসার;
  • মেডিকেল ইনফরমেশন অফিসার;
  • মেডিকেল প্রমোশন অফিসার।

একজন মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ কী ধরনের কাজ করেন?

পণ্য সচেতনতা বাড়ানো, পণ্য সংক্রান্ত পরামর্শ ও প্রশ্নের উত্তর দেয়া এবং গ্রাহকদের নতুন পণ্যের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়া একজন মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভের মূল কাজ।

সাধারণত যে ধরনের কাজ মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভরা করে থাকেন, তার মধ্যে রয়েছেঃ

  • ক্লিনিক বা হাসপাতালের মতো প্রতিষ্ঠানগুলোতে কাজ করা স্বাস্থ্য সেবাকর্মীদের (উদাঃ ডাক্তার, নার্স ও ফার্মাসিস্ট) সাথে নিয়মিত ও সরাসরি যোগাযোগ করা;
  • ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য নতুন প্রতিষ্ঠান ও গ্রাহক সনাক্ত করা;
  • স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা খাতের পেশাজীবীদের কাছে কোম্পানির পণ্য উপস্থাপন করা;
  • কোম্পানির পণ্য কেমন বিক্রি হচ্ছে, সে ব্যাপারে বিস্তারিত রেকর্ড রাখা;
  • কোন ধরনের পণ্যের বিক্রি ভালো হচ্ছে, সে ব্যাপারে খোঁজখবর নিয়ে কোম্পানিকে জানানো;
  • অন্যান্য মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভকে নিয়ে ট্রেড প্রদর্শনী, সম্মেলন ও প্রয়োজনীয় মিটিংয়ের ব্যবস্থা করা;
  • পণ্য বিক্রয়ের বাজেট তৈরি করা;
  • কোম্পানির জন্য রিপোর্ট লেখা।

কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয় একজন মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভের?

এ পেশায় আসতে হলে নির্দিষ্ট বিষয়ে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা থাকার বাধ্যবাধকতা নেই। গ্র্যাজুয়েট/মাস্টার্স ডিগ্রিধারীরা চাকরির আবেদন করতে পারেন প্রায় সব প্রতিষ্ঠানে। তবে আমাদের দেশে সাধারণত এসএসসি বা এইসএসসি লেভেল পর্যন্ত বিজ্ঞান শাখার শিক্ষার্থী হওয়া জরুরি।

মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ হবার জন্য একজন প্রার্থীর বয়স সাধারণত ৩০ বছরের মধ্যে হতে হয়।

কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয় একজন মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভের?

প্রায় সময় প্রতিষ্ঠানগুলো মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভদের জন্য বিক্রয় লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে। তাই এ পেশায় ভালো করতে হলে পণ্য বিক্রির দক্ষতার কোন বিকল্প নেই।

অন্যান্য স্কিলের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো –

  • বাণিজ্যিক সচেতনতা: মেডিকেল পণ্যের বাজার সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকা দরকার আপনার।
  • যোগাযোগের দক্ষতা: নতুন গ্রাহক ও প্রতিষ্ঠানকে আকর্ষণ করতে কাজে দেবে আপনার এ দক্ষতা।
  • পরিপক্কতা: এ পেশায় প্রচুর মানসিক চাপ সামলাতে হয় একজন প্রতিনিধির। ধৈর্যের সাথে পরিস্থিতি সামলানোর সামর্থ্য থাকা তাই আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ।
  • সাংগঠনিক দক্ষতা: অন্যান্য মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভের সাথে প্রায় সময় পণ্য সংক্রান্ত কাজে আপনাকে দেখা করতে হবে। এ ক্ষেত্রে মিটিং ব্যবস্থাপনার জ্ঞান প্রয়োগ করা বাঞ্ছনীয়।

একজন মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভের মাসিক আয় কেমন?

আমাদের দেশে অভিজ্ঞতা ছাড়া বা স্বল্প অভিজ্ঞ কর্মীর আনুমানিক গড় আয় মাসিক ৳১০,০০০ টাকা। দেশের বাইরে গেলে মাসিক ১০০,০০০ টাকা থেকে ৩০০,০০০ টাকা বা তার বেশি পর্যন্ত আয় হতে পারে।

ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে একজন মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভের?

একজন মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ শুরুতে ট্রেইনী অফিসার হিসাবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে কাজের ভিত্তিতে এরিয়া ম্যানেজার হিসাবে উন্নীত হন। এ পেশায় টপ লেভেলের সরাসরি কোন পদ নেই। তবে কোম্পানির সেলস বা বিক্রয় বিভাগের প্রধান হিসাবে নিযুক্ত হতে পারবেন।

তথ্যসূত্র

১. ‘চ্যালেঞ্জিং পেশা মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ’, ২১ নভেম্বর ২০১৪, দৈনিক প্রথম আলো।

২. ‘মেডিকেল প্রমোশন অফিসারে চ্যালেঞ্জিং ক্যারিয়ার’, ১২ অক্টোবর ২০১৬, দৈনিক ইত্তেফাক।

৩. হেলথকেয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, বিজ্ঞপ্তির তারিখঃ ১ এপ্রিল ২০১৮, বিডিজবস ডট কম।

৪. ইউনাইটেড কেমিক্যালস অ্যান্ড ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড, বিজ্ঞপ্তির তারিখঃ ৮ এপ্রিল ২০১৮, বিডিজবস ডট কম।

কেন নেবেন ক্যারিয়ার টেস্ট?

  • সরাসরি ইন্টারভিউর কল পেতে
  • সরাসরি চাকরির পরীক্ষা দিতে
  • চাকরি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে
  • চাকরির জন্য দরকারি স্কিল অর্জন করতে
ক্যারিয়ার টেস্টে যান

2 thoughts on “মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ

    1. মেডিকেল ইনফরমেশন অফিসার হলো মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভের আরেকটি নাম। তাই তাদের কাজও এক।

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।