লাইসেন্স দরকার হয় যেসব ক্যারিয়ারে

লাইসেন্স দরকার হয় যেসব ক্যারিয়ারে - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

বাংলাদেশ সরকারের নিয়ম অনুযায়ী বেশ কিছু পেশায় কাজ করতে চাইলে আগে লাইসেন্স নেয়া প্রয়োজন। সাধারণত কোন পেশায় যোগ্য ও নির্ভরযোগ্য মানুষের সেবাদান নিশ্চিত করতে এ ধরনের লাইসেন্স ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। এমন কিছু পেশা নিয়ে জেনে নেয়া যাক এ লেখায়।

এমবিবিএস ডাক্তার

এমবিবিএস পাশ করার পর একজন ডাক্তার হিসাবে ব্যক্তিগত চেম্বার খুলে চিকিৎসা সেবা দিয়ে চাইলে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল থেকে লাইসেন্স নেয়া দরকার। এক্ষেত্রে আপনাকে বেশ কিছু নির্বাচনী প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হবে।

ডেন্টিস্ট

আপনি যদি দাঁতের ডাক্তার হন, তাহলে সাধারণ চিকিৎসকদের মতো আপনাকেও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল থেকে লাইসেন্স নিতে হবে। এর জন্য ন্যূনতম বিডিএস ডিগ্রি থাকা প্রয়োজন।

নার্স ও মিডওয়াইফ

নার্স বা মিডওয়াইফ হিসাবে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কাউন্সিল থেকে সনদ গ্রহণ করা বাধ্যতামূলক। এ সনদ ছাড়া কাউকে বৈধ বা স্বীকৃত নার্স বা মিডওয়াইফ হিসেবে গণ্য করা হয় না।

ফার্মাসিস্ট

ফার্মেসি কাউন্সিল অফ বাংলাদেশ (PCB) বাংলাদেশের ফার্মাসিস্টদের লাইসেন্স দিয়ে থাকে।

পেশাদার ইঞ্জিনিয়ার

ইঞ্জিনিয়ার হিসাবে কাজ করার জন্য ইন্সটিটিউট অফ ইঞ্জিনিয়ারস, বাংলাদেশ (IEB) থেকে লাইসেন্স নিতে হয়। এ প্রতিষ্ঠান ৩ ধরনের লাইসেন্স প্রদান দেয়: ফেলোশিপ, মেম্বারশিপ এবং অ্যাসোসিয়েট মেম্বারশিপ।

অ্যাডভোকেট

শুধু আইনি ডিগ্রি নিয়ে কোন আইনজীবী অ্যাডভোকেট হিসাবে কাজ করতে পারেন না। এর জন্য বাংলাদেশ বার কাউন্সিল আয়োজিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সনদ নিতে হবে।

বেসরকারি শিক্ষক

বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক হিসেবে নিযুক্ত হতে চাইলে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (NTRCA) আয়োজিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে আপনাকে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করতে হবে। শিক্ষক নিবন্ধনের পুরো প্রক্রিয়াটি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দিষ্ট নিয়মানুসারে সম্পন্ন হয়।

পাইলট, কেবিন ক্রু ও অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার

বাংলাদেশে অ্যাভিয়েশন বা বিমানচালনা খাতে পাইলট, কেবিন ক্রু ও অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারের পেশায় লাইসেন্স দেয় বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ

চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট

চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট হিসেবে প্রফেশনাল সার্ভিস দিতে চাইলে ইন্সটিটিউট অফ চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট বাংলাদেশ (ICAB) থেকে অডিট ফার্ম খোলার লাইসেন্স গ্রহণ নিতে হয়।

Loading

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।