লেদার ইঞ্জিনিয়ার

লেদার ইঞ্জিনিয়ার: ক্যারিয়ার প্রোফাইল - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

একজন লেদার ইঞ্জিনিয়ার চামড়াজাত দ্রব্যের ইন্ডাস্ট্রিতে রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট, প্রোডাক্ট ডিজাইনিং, প্রোডাক্ট ডেভেলপমেন্ট, প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং, মার্চেন্ডাইজিংসহ বিভিন্ন বিভাগে কাজ করেন। বর্তমানে আমাদের দেশে এ পেশাজীবীদের জন্য রয়েছে আকর্ষণীয় চাকরি।

এক নজরে একজন লেদার ইঞ্জিনিয়ার

সাধারণ পদবী: লেদার ইঞ্জিনিয়ার
বিভাগ: ইঞ্জিনিয়ারিং
প্রতিষ্ঠানের ধরন: কোম্পানি
ক্যারিয়ারের ধরন: ফুল টাইম
লেভেল: এন্ট্রি, মিড
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য অভিজ্ঞতা সীমা: ০ – ২ বছর
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য গড় বেতন: ৳২০,০০০
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য বয়স: ২৫ বছর
মূল স্কিল: প্রসেস ডেভেলপমেন্টের দক্ষতা
বিশেষ স্কিল: প্রজেক্ট ব্যবস্থাপনা, ল্যাবরেটরি ব্যবস্থাপনা

একজন লেদার ইঞ্জিনিয়ার কোথায় কাজ করেন?

চামড়াজাত দ্রব্য উৎপাদনের সাথে জড়িত শিল্পকারখানা বা প্রতিষ্ঠানে একজন লেদার ইঞ্জিনিয়ার কাজ করে থাকেন। যেমন, জুতার কারখানা। ইয়ংওয়ান, বাটা, অ্যাপেক্স ও অন্যান্য চামড়ানির্ভর কর্পোরেট প্রতিষ্ঠান মুখিয়ে থাকে দক্ষ কর্মীর জন্য। এছাড়া ডায়িং শিল্পে লেদার ইঞ্জিনিয়ারদের চাহিদা রয়েছে।

একজন লেদার ইঞ্জিনিয়ার কী ধরনের কাজ করেন?

  • কাঁচামালের (চামড়ার) গুণগত মান পরীক্ষা করা;
  • প্রয়োজনে কাঁচামালের (চামড়ার) রাসায়নিক পরিবর্তন করা;
  • চামড়া প্রক্রিয়াজাতকরণের কাজ পর্যবেক্ষণ করা;
  • কিছু ক্ষেত্রে চামড়াজাত পণ্যের নকশা করা;
  • চামড়া প্রক্রিয়াজাতকরণের সময় উৎপাদিত বর্জ্যের ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে কর্তৃপক্ষকে পরামর্শ দেয়া।

একজন লেদার ইঞ্জিনিয়ারের কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয়?

শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ লেদার ইঞ্জিনিয়ার হতে হলে আপনাকে অবশ্যই এ বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি নিতে হবে। বিএসসি ইন লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং, বিএসসি ইন ফুটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং, বিএসসি ইন লেদার প্রোডাক্ট ইঞ্জিনিয়ারিং – এগুলোর মধ্যে যে কোন একটি ডিগ্রি যথেষ্ট।

উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে মূল বিষয়ের পাশাপাশি কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, পলিমার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ম্যাটেরিয়াল সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিজাইনিং, ইন্ডাস্ট্রিয়াল প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং, বায়োলজিক্যাল সায়েন্স ইত্যাদি বিষয়ে একজন লেদার ইঞ্জিনিয়ার পড়াশোনা করতে পারেন।

বয়সঃ প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষে বয়সের সীমা নির্ধারিত হয়। সাধারণত আপনার বয়স কমপক্ষে ২৫ বছর হতে হবে।

অভিজ্ঞতাঃ এ পেশায় অভিজ্ঞদের প্রাধান্য রয়েছে। সাধারণত ১-২ বছরের অভিজ্ঞতা কাজে আসে।

একজন লেদার ইঞ্জিনিয়ারের কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয়?

  • সর্বোচ্চ উৎপাদনের জন্য রাসায়নিক উপকরণ ব্যবহারের দক্ষতা;
  • চামড়ার গুণাগুণ নিয়ন্ত্রণ ও পরীক্ষার জন্য ব্যবহারিক কাজে ভালোভাবে বিশ্লেষণ করার সক্ষমতা;
  • কারখানার উৎপাদন প্রক্রিয়া ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনার খুঁটিনাটি জানা;
  • ল্যাবরেটরি ব্যবস্থাপনার দক্ষতা;

কোয়ালিটি কন্ট্রোল, ম্যানেজমেন্ট ও সাপ্লাই চেইনের ধারণা এ খাতে অনেক কাজে দেয়। ক্লায়েন্টের সাথে যোগাযোগ করার দক্ষতাও বেশ জরুরি।

কোথায় পড়বেন লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং?

বাংলাদেশের দুইটি প্রতিষ্ঠানে লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে পড়তে পারেন –

  • ইনস্টিটিউট অফ লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি (ILET), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
  • খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (KUET)

একজন লেদার ইঞ্জিনিয়ারের মাসিক আয় কেমন?

শুরুতে একজন লেদার ইঞ্জিনিয়ার মাসে ৳২০,০০০ – ৳২৫,০০০ হয়ে থাকে। অভিজ্ঞতা অর্জনের সাথে সাথে ২-৩ বছরের মধ্যে বেতন ৳৫০,০০০ হয়ে যায়। দক্ষ ও অভিজ্ঞ কর্মী হলে বেতন কয়েক লাখ টাকা হওয়া অসম্ভব কিছু নয়।

ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে একজন লেদার ইঞ্জিনিয়ারের?

আমাদের দেশের চামড়াজাত শিল্পে প্রসারের ফলে এ পেশার চাহিদা বেড়েই চলেছে। ইঞ্জিনিয়ার হিসাবে ক্যারিয়ার শুরু করলেও অভিজ্ঞতা ও কারিগরি দক্ষতা অর্জন করতে পারলে ম্যানেজার পদে উন্নীত হবার সুযোগ রয়েছে আপনার। এছাড়া ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ পদ হতে পারে চীফ লেদার টেকনোলজিস্ট।

তথ্যসূত্র

১. ‘বিষয় লেদার টেকনোলজি’, দৈনিক ইত্তেফাক, ২০ এপ্রিল ২০১৬।

২. ‘লেদার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে ক্যারিয়ার’, দৈনিক আমাদের সময়, ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭।

৩. এডিসন ফুটওয়্যার লিমিটেড, বিজ্ঞপ্তির তারিখঃ ১৭ এপ্রিল ২০১৮, বিডিজবস ডট কম।

৪. এসজিএস বাংলাদেশ লিমিটেড, বিজ্ঞপ্তির তারিখঃ ১৮ এপ্রিল ২০১৮, বিডিজবস ডট কম।

Loading

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।