স্টুডেন্ট কাউন্সেলর

স্টুডেন্ট কাউন্সেলর: ক্যারিয়ার প্রোফাইল - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

প্রতি বছর বাংলাদেশ থেকে বড় সংখ্যক শিক্ষার্থী উচ্চশিক্ষা অর্জনের জন্য বিদেশে যায়। একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলর এ প্রক্রিয়ায় তাদেরকে সাহায্য করে থাকেন।

এক নজরে একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলর

সাধারণ পদবী: স্টুডেন্ট কাউন্সেলর
বিভাগ: শিক্ষা
প্রতিষ্ঠানের ধরন: বেসরকারি, প্রাইভেট ফার্ম/কোম্পানি, ফ্রিল্যান্সিং
ক্যারিয়ারের ধরন: ফুল টাইম, পার্ট টাইম
লেভেল: এন্ট্রি, মিড
এন্ট্রি লেভেলে অভিজ্ঞতা সীমা: ২ – ৬ বছর
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য গড় বেতন: ৳১৫,০০০ – ৳২০,০০০
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য বয়স সীমা: ২৫ – ৩০ বছর
মূল স্কিল: যোগাযোগের দক্ষতা, যথাসম্ভব কম সময়ের মধ্যে তথ্য সংগ্রহ করতে পারা
বিশেষ স্কিল: ধৈর্য, সময় ব্যবস্থাপনা, মানসিক চাপ সামলানোর ক্ষমতা

একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলর কোথায় কাজ করেন?

স্টুডেন্ট কাউন্সেলর পদটি সাধারণত মাইগ্রেশন ও স্টুডেন্ট রিক্রুটিং এজেন্সিতে থাকে।

একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলর কী ধরনের কাজ করেন?

  • অন্য দেশে উচ্চশিক্ষার্থে যেতে আগ্রহী শিক্ষার্থীকে প্রয়োজনীয় সব বিষয়ে তথ্য দেয়া;
  • শিক্ষার্থীর জন্য দরকারি কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করা ও ভুল সংশোধনের ব্যবস্থা নেয়া;
  • পুরো প্রক্রিয়ার অগ্রগতি পর্যবেক্ষণ করা ও শিক্ষার্থীকে জানানো;
  • প্রয়োজনে বাইরের এজেন্সিগুলোর সাথে যোগাযোগ করা;
  • শিক্ষার্থীর ভিসা আবেদন প্রক্রিয়ায় সহায়তা দেয়া;
  • বিদেশ যেতে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের সাথে যোগাযোগ করা;
  • বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিদেশের উচ্চশিক্ষা সম্পর্কে প্রেজেন্টেশন দেয়া;
  • বিভিন্ন পার্টনার এজেন্সির সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখা।
  • পুরো প্রক্রিয়ার অগ্রগতি পর্যবেক্ষণ করা ও শিক্ষার্থীকে জানানো।

একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলরের কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয়?

দেশের শীর্ষ একটি চাকরির ওয়েবসাইটে আইইসিসি লিমিটেড, এডুকেশন হেল্পলাইন গ্রুপ, বাংলাদেশ মালয়েশিয়া স্টাডি সেন্টার(BMSC), নিউ লাইন এবং পিএফইসি গ্লোবাল – এ পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের চাকরির বিজ্ঞপ্তি থেকে পাওয়া তথ্যানুসারে, একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলরের নিম্নলিখিত যোগ্যতা থাকা প্রয়োজন –

শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ যে কোন বিষয়ে ব্যাচেলর ডিগ্রি। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ মালয়েশিয়া স্টাডি সেন্টার কানাডা, চীন, মালয়েশিয়া এবং অস্ট্রেলিয়া থেকে ডিগ্রি আছে, এমন কাউকে নিয়োগের জন্য বাধ্যতামূলক যোগ্যতা হিসেবে গণ্য করে।

অভিজ্ঞতাঃ সাধারণত ২-৬ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হয়। কিছু ক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা ছাড়াও নিয়োগ দেওয়া হয়; যেমন – এডুকেশন হেল্পলাইন গ্রুপ অভিজ্ঞতা নেই, এমন কাউকে নিয়োগ দিতেই আগ্রহী। তবে অভিজ্ঞতাসম্পন্ন প্রার্থীরা সাধারণত প্রাধান্য পেয়ে থাকেন।

বয়সঃ এন্ট্রি লেভেলে বয়সসীমা সাধারণত ২০ থেকে ৩০ বছর। তবে বিষয়টি প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ।

বিশেষ শর্তঃকিছু কিছু সময় নিয়োগের ক্ষেত্রে নারী অথবা পুরুষের কথা আলাদাভাবে উল্লেখ করা থাকতে পারে। যেমন – এডুকেশন হেল্পলাইন গ্রুপ তাদের নিয়োগক্ষেত্রে নারী প্রার্থীর কথা উল্লেখ করে দেয়।

কিছু কিছু ক্ষেত্রে একটি নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দেয়া হয়, যাতে প্রার্থী খুব অল্প সময়েই চাকরি পরিবর্তন করতে না পারেন। যেমন – বাংলাদেশ মালয়েশিয়া স্টাডি সেন্টার যাকে নিয়োগ দেবে, তাকে পরবর্তী ৫ বছরের জন্য একই প্রতিষ্ঠানে স্টুডেন্ট কাউন্সেলর হিসেবে কাজ করতে হবে। এক্ষেত্রে ৬ মাস বা নির্দিষ্ট সময় পরে বেতন বৃদ্ধির কথা উল্লেখ করা থাকলেও আবেদন করার আগে ব্যাপারটি খেয়াল রাখা জরুরি।

একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলরের কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয়?

  • কম সময়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় তথ্য খুঁজে বের করার দক্ষতা;
  • ইংরেজি ভাষায় দক্ষভাবে যোগাযোগ করতে পারা;
  • বাইরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকা;
  • বিভিন্ন দেশের ইমিগ্রেশন আইন সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখা ও নিয়মিত খোঁজখবর নেয়া;
  • নির্ভুলভাবে ভর্তি সংক্রান্ত কাগজপত্র তৈরি করতে পারা;
  • নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে শিক্ষার্থীর বিদেশ যাবার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার দক্ষতা;
  • বিভিন্ন ধরনের শিক্ষার্থীকে সহযোগিতা করার মানসিকতা ও ধৈর্য থাকা;
  • শিক্ষার্থীর চাহিদা ও সমস্যা বুঝতে পারা এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া।

একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলরের মাসিক আয় কেমন?

মাসিক আয় সাধারণত কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ। প্রতিষ্ঠানের ভিত্তিতে বোনাস আর মাসিক আয় বৃদ্ধির ব্যাপার নির্ভর করে। তবে আপনার প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে বিদেশে যাবার জন্য জন্য আপনি যতজন আবেদনকারী ম্যানেজ করতে পারবেন, তত বেশি কমিশন পেতে পারেন। এডুকেশন হেল্পলাইন গ্রুপের ক্ষেত্রে একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলরের মাসিক আয় ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা।

একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলরের জন্য কাজ শেখার সুযোগ কোথায় আছে?

বহু এজেন্সিতে এন্ট্রি লেভেলের চাকরি নিয়ে কাজ শেখার সুযোগ রয়েছে আপনার জন্য। তবে চ্যালেঞ্জিং এ পেশায় কাজ করার জন্য প্রচুর তথ্য সংগ্রহ করার দক্ষতা ও কঠোর পরিশ্রম করার মানসিকতা থাকতে হবে।

একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলরের ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে?

একজন স্টুডেন্ট কাউন্সেলরের ক্যারিয়ার সুনির্দিষ্ট নয়। কোন এজেন্সিতে কয়েক বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে সে প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার পদে উন্নীত হতে পারেন। অন্যদিকে ফ্রিল্যান্স কনসালট্যান্ট হিসাবেও কাজ করার সুযোগ রয়েছে আপনার জন্য।

Loading

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।