স্পোর্টস কোচ

ক্যারিয়ার কন্টেন্ট - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

একজন স্পোর্টস কোচ একজন খেলোয়াড় বা একটি দলের পারফরম্যান্স বাড়ানোর জন্য সার্বিক দিকনির্দেশনা দিয়ে থাকেন। এক্ষেত্রে তাকে প্রতিভা চিহ্নিত করা থেকে শুরু করে খেলাধুলার পদ্ধতি বিশ্লেষণের কাজ করতে হয়।

এক নজরে একজন স্পোর্টস কোচ

সাধারণ পদবী: স্পোর্টস কোচ
বিভাগ: শরীরচর্চা ও খেলাধুলা
প্রতিষ্ঠানের ধরন: সরকারি, বেসরকারি
ক্যারিয়ারের ধরন: পার্ট-টাইম, ফুল-টাইম, চুক্তিভিত্তিক
লেভেল: মিড, টপ
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য অভিজ্ঞতা সীমা: ৩ – ৫ বছর
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য গড় বেতন: ৳১৫,০০০ – ৳৩০,০০০
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য বয়স: প্রযোজ্য নয়
মূল স্কিল: নিজের খেলার উপর সম্যক জ্ঞান, নেতৃত্ব দানের ক্ষমতা, অনুপ্রাণিত করার ক্ষমতা
বিশেষ স্কিল: সূক্ষ্ম পর্যবেক্ষণ ক্ষমতা, বিশ্লেষণী ক্ষমতা, যোগাযোগের দক্ষতা, ধৈর্য

একজন স্পোর্টস কোচ কোথায় কাজ করেন?

স্পোর্টস কোচ হিসাবে আপনি যেসব জায়গায় নিয়োগ পেতে পারেন, তার মধ্যে রয়েছেঃ

  • বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (BKSP);
  • বেসরকারি ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান;
  • স্থানীয় ক্লাব;
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

একজন স্পোর্টস কোচ কী ধরনের কাজ করেন?

  • খেলোয়াড়দের পারফর্ম্যান্স বিশ্লেষণ করা;
  • খেলোয়াড়দের ফিডব্যাক দেয়া;
  • খেলোয়াড়দেরকে নতুন পদ্ধতি শেখানো;
  • খেলোয়াড়দের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য রক্ষার্থে পরামর্শ দেয়া;
  • খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাস অর্জনে সহায়তা করা;
  • খেলোয়াড়দের সুবিধা-অসুবিধার ব্যাপারে খেয়াল রাখা ও কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা;
  • দল পরিচালনার ক্ষেত্রে খেলোয়াড়েরা কীভাবে একসাথে কাজ করতে পারে, সে ব্যাপারে নিয়মিত নির্দেশনা দেয়া।

একজন স্পোর্টস কোচের কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয়?

শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ স্পোর্টস কোচ হতে হলে সে বিষয়ে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা আবশ্যক নয়। সাধারণত কোন খেলায় আপনার অভিজ্ঞতা থাকলে তা কোচ হবার বেলায় কাজে আসে। তবে প্রাতিষ্ঠানিক নিয়োগের ক্ষেত্রে ঐ খেলার উপর ডিগ্রি থাকা বাঞ্ছনীয়।

বয়সঃ কাজ ও প্রতিষ্ঠানভেদে বয়সের সীমা আলাদা হয়।

অভিজ্ঞতাঃ এ পেশায় অভিজ্ঞদের প্রাধান্য রয়েছে। সাধারণত ৩ – ৫ বছরের অভিজ্ঞতা কাজে আসে। অভিজ্ঞতা না থাকলে সহকারী স্পোর্টস কোচের কাজ পেতে পারেন।

একজন স্পোর্টস কোচের কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয়?

  • নিজের খেলার উপর সম্যক ধারণা;
  • খুঁটিনাটি বিষয় বিশ্লেষণ করার দক্ষতা;
  • খেলোয়াড়দের সামর্থ্য ও দুর্বলতা চিহ্নিত করতে পারার ক্ষমতা;
  • ধৈর্যের সাথে খেলোয়াড়দের নির্দেশনা দিতে পারা;
  • সঠিক পরিকল্পনার মাধ্যমে খেলোয়াড়দের সংগঠিত করার দক্ষতা;
  • খেলোয়াড়দের অনুপ্রাণিত করতে পারা।

একজন স্পোর্টস কোচের মাসিক আয় কেমন?

বিকেএসপির ক্ষেত্রে একজন স্পোর্টস কোচকে সাধারণত ৯ম পে স্কেল অনুসারে নিয়োগের শুরুতে মাসিক ২২,০০০ টাকা দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে বার্ষিক ৫ শতাংশ বৃদ্ধির ব্যাপারটি উল্লেখযোগ্য।

অস্থায়ী নিয়োগের ক্ষেত্রে বিকেএসপি একজন কোচকে সর্বসাকুল্যে মাসিক ৩৫,০০০ টাকা সম্মানী প্রদান করে থাকে। এছাড়া অন্য প্রতিষ্ঠানগুলোতে মাসিক ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকার মতো আয় করা যায়।

একজন স্পোর্টস কোচের ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে?

একজন স্পোর্টস কোচের ক্যারিয়ার তার নাম, যশ, কৌশল ও খ্যাতির উপর নির্ভরশীল। যদি আপনি বেশ কয়েকজন ভালো খেলোয়াড় তৈরি করতে পারেন কিংবা তৃণমূল পর্যায়ে আপনার কৌশল বেশ কাজে দেয়, সেক্ষেত্রে আপনাকে জাতীয় দল কিংবা জাতীয় লীগের কোন দলের কোচ হিসেবে নিয়োগ পেতে পারেন।

বিকেএসপিতে খেলোয়াড় তৈরি করার ক্ষেত্রে আপনার বিশেষ ভূমিকা থাকলে এবং আপনার বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী যদি জাতীয় দল বা জাতীয় লীগে খেলার সুযোগ পায়, সেক্ষেত্রে আপনার জন্য লীগের দল এবং জাতীয় দলগুলোর কাছে চাহিদা তৈরি হবে।

Loading

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।