ইন্টেরিয়র ডিজাইনার

ইন্টেরিয়র ডিজাইনার: ক্যারিয়ার প্রোফাইল - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

একজন ইন্টেরিয়র ডিজাইনার কোন বাড়ি বা প্রতিষ্ঠানের অন্দরসজ্জা ডিজাইন করেন। একটি ভবনের লাইটিং থেকে শুরু করে খোলা জায়গার সৌন্দর্য বাড়ানোতে আপনি ভূমিকা রাখতে পারবেন এ পেশার মাধ্যমে।

এক নজরে একজন ইন্টেরিয়র ডিজাইনার

সাধারণ পদবী:ইন্টেরিয়র ডিজাইনার
বিভাগ: ক্রিয়েটিভ ক্যারিয়ার
প্রতিষ্ঠানের ধরন:বেসরকারি, প্রাইভেট ফার্ম/কোম্পানি
ক্যারিয়ারের ধরন: ফুল-টাইম
লেভেল: এন্ট্রি, মিড
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য অভিজ্ঞতা সীমা: কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য আয়: ৳২০,০০০ – ৳৬০,০০০/মাস
এন্ট্রি লেভেলে সম্ভাব্য বয়সসীমা: কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ
মূল স্কিল: সৃজনশীলতা, ডিজাইন সফটওয়্যারে পারদর্শিতা
বিশেষ স্কিল: খুঁটিনাটি সম্পর্কে সচেতনতা, সমস্যা সমাধানের দক্ষতা

কোন ধরনের প্রতিষ্ঠানে একজন ইন্টেরিয়র ডিজাইনার কাজ করেন?

  • ইন্টেরিয়র ডিজাইনিং কন্সাল্টেন্সি ফার্ম;
  • রিয়েল এস্টেট ও ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি;
  • বিজ্ঞাপনী সংস্থা;
  • মাল্টিন্যাশনাল কর্পোরেট কোম্পানি;
  • হোটেল চেইন;
  • অনলাইন মার্কেটপ্লেস ইত্যাদি।

একজন ইন্টেরিয়র ডিজাইনার কী ধরনের কাজ করেন?

  • ক্লায়েন্টের ঠিক কেমন ডিজাইন প্রয়োজন, আলোচনার মাধ্যমে তা চিহ্নিত করা;
  • যে স্থান ব্যবহার করা হবে, সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য ও ধারণা নেয়া;
  • ভবন পরিদর্শন ও সার্ভে করা;
  • কাজের ফি নির্ধারণ করা;
  • প্রকল্পের জন্য গবেষণা করা ও সম্ভাব্য সময় নির্ধারণ;
  • প্রকল্পের খসড়া স্কেচ ও মুড বোর্ড তৈরি করা;
  • কম্পিউটারে নকশা তৈরি করার সফটওয়্যারে (CAD) ছোট মাপের মডেল ব্যবহার করে বিস্তারিত নকশা তৈরি করা;
  • বাজেট অনুযায়ী নকশার জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত উপকরণ নির্বাচন;
  • ক্লায়েন্টের সাথে নিয়মিত পরামর্শ করা ও কাজের অগ্রগতি সম্পর্কে রিপোর্ট দেয়া;
  • প্রকল্প বাস্তবায়নের সময় সার্বিক তত্ত্বাবধান করা।

একজন ইন্টেরিয়র ডিজাইনারের কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয়?

শিক্ষাগত যোগ্যতা: সাধারণত ইন্টেরিয়র ডিজাইন কিংবা আর্কিটেকচারে ডিপ্লোমা, ব্যাচেলর বা মাস্টার্স ডিগ্রি থাকা প্রয়োজন।

অভিজ্ঞতা: কাজ ও প্রতিষ্ঠানভেদে আলাদা হয়। তবে বড় প্রজেক্টে কাজ করার জন্য ২-৩ বছরের অভিজ্ঞতা থাকা দরকার।

একজন ইন্টেরিয়র ডিজাইনারের কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয়?

টেকনিক্যাল জ্ঞান ও দক্ষতার মধ্যে রয়েছে –

  • বিল্ডিং সংক্রান্ত কোড ও নীতিমালা সম্পর্কে জ্ঞান;
  • ডিজাইন সফটওয়্যার ব্যবহারে পারদর্শিতা;
  • ইন্টেরিয়র ডিজাইনে ব্যবহৃত কাপড়ের মান ও ধরন সম্পর্কিত জ্ঞান;
  • রংয়ের মান ও ভারসাম্য সম্পর্কে গভীর ধারণা;
  • স্পেস পরিকল্পনার জ্ঞান।

নন-টেকনিক্যাল জ্ঞানের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো –

  • কোন ধারণাকে আঁকার মাধ্যমে পরিষ্কারভাবে প্রকাশ করতে পারা;
  • সৃজনশীল উপায়ে ও যৌক্তিকভাবে সমস্যা সমাধানের দক্ষতা;
  • বিশ্লেষণী ক্ষমতা, যা খুঁটিনাটি বিষয়গুলো পর্যবেক্ষণে সাহায্য করতে পারে;
  • দলগত কাজ করার ক্ষমতা;
  • যোগাযোগের দক্ষতা, যা ডিজাইনের কনসেপ্ট অন্যদের কাছে ব্যাখ্যা করার জন্য দরকারি;
  • বিভিন্ন ধরনের কাজ একসাথে সামলানোর দক্ষতা।

কোথায় শিখবেন ইন্টেরিয়র ডিজাইনিং?

বাংলাদেশে বর্তমানে ইন্টেরিয়র ডিজাইন শেখানোর বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এগুলোতে শর্ট ও লং কোর্সে ভর্তি হয়ে একজন শিক্ষার্থী এ বিষয়ে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা লাভ করতে পারেন। কোর্সগুলোর মেয়াদ সাধারণত ৬ মাস থেকে ২ বছর পর্যন্ত হতে পারে। এ ধরনের কিছু প্রতিষ্ঠান হলো:

  • শান্ত-মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অফ ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি;
  • রেডিয়েন্ট ইনস্টিটিউট অফ ডিজাইন;
  • বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অফ ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট;
  • ইনস্টিটিউট অফ ইনোভেটিভ ডিজাইন;
  • ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ডিজাইন ইত্যাদি।

এক বছর থেকে দুই বছর ও ছয় মাস মেয়াদি এসব কোর্সে খরচ পড়বে ৪০ হাজার থেকে ১ লাখ টাকা।

উল্লেখ্য যে, আর্কিটেকচারে পড়াশোনা করেও এ পেশায় খুব সহজে কাজ করা সম্ভব।

একজন ইন্টেরিয়র ডিজাইনারের মাসিক আয় কেমন?

সৃজনশীলতা ও দক্ষতা থাকলে এ পেশায় ভালো আয় সম্ভব। চাকরিজীবনের শুরুতে ২০ থেকে ৬০ হাজার টাকা মাসিক আয় হতে পারে। কাজের অভিজ্ঞতা অনুযায়ী আয় বাড়তে থাকবে। এছাড়া অনলাইন মার্কেটপ্লেসে বা চুক্তিভিত্তিক কাজ করেও ভালো উপার্জন করা সম্ভব।

ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে একজন ইন্টেরিয়র ডিজাইনারের?

সাধারণত অ্যাসিস্ট্যান্ট ডিজাইনার হিসাবে কোন আর্কিটেকচার ফার্মে বা রিয়েল এস্টেট কোম্পানিতে আপনার চাকরি শুরু হবে। অভিজ্ঞতা বাড়ার সাথে ম্যানেজারিয়াল কোন পদে উন্নীত হতে পারেন। সর্বোচ্চ পর্যায়ে একটি প্রতিষ্ঠানের ইন্টেরিয়র ডিজাইনের প্রধান হিসাবে যোগদান করা সম্ভব। তবে বহু ইন্টেরিয়র ডিজাইনার নিজেদের ফার্ম খুলে স্বাধীনভাবে কনসাল্টেন্সি করাকে প্রাধান্য দিয়ে থাকেন।

ইন্টেরিয়র ডিজাইনের উপর টেস্ট দিন

ভালো স্কোর করলে পাচ্ছেন ক্যারিয়ারকীর ট্যালেন্ট পুলে থাকার সুযোগ। ইন্টেরিয়র ডিজাইনের দক্ষতা খোঁজেন এমন নিয়োগদাতারা সে ট্যালেন্ট পুল থেকে আপনাকে চাকরির ইন্টারভিউর জন্য ডাকতে পারবেন।

টেস্টে যান

কেন নেবেন ক্যারিয়ার টেস্ট?

  • সরাসরি ইন্টারভিউর কল পেতে
  • সরাসরি চাকরির পরীক্ষা দিতে
  • চাকরি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে
  • চাকরির জন্য দরকারি স্কিল অর্জন করতে
ক্যারিয়ার টেস্টে যান

6 thoughts on “ইন্টেরিয়র ডিজাইনার

    1. দক্ষতা ও জ্ঞান সঠিকভাবে প্রয়োগ করতে পারলে সকলেই পারবে এ পেশায় সফল হতে। আর যে কোন ধরনের পরামর্শের জন্য যোগাযোগ করতে পারেন আমাদের সাথে। ধন্যবাদ।

    1. আমাদের কন্টেন্টে ইন্টেরিয়র ডিজাইনিং শেখার জন্য কিছু প্রতিষ্ঠানের নাম দেয়া আছে। সেগুলো থেকে কোর্স বা ট্রেনিং করতে পারেন।

        1. এটা নির্ভর করে প্রতিষ্ঠানগুলোর উপর। শর্ট কোর্স বা ট্রেনিংয়ের ক্ষেত্রে সাধারণত গড়ে ৳১৫,০০০ – ৳৫০,০০০ লাগতে পারে।

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।