ম্যানিকিউরিস্ট

ক্যারিয়ার কন্টেন্ট - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

হাতের নখ সুন্দর ও নকশা করার যে শিল্প তাকে ম্যানিকিউর(Manicure) বলা হয়। সাধারণত সৌন্দর্য বর্ধনের জন্যই নখে বিভিন্ন কসমেটিকস সামগ্রী ব্যবহার ছাড়াও নিষ্প্রাণ টিস্যু সরানোর কাজও এই শিল্পের মাধ্যমে করা হয়ে থাকে। বর্তমানে বিউটি পার্লারে সাজসজ্জা বা মেকআপ এখনও সাজসজ্জার মূল আকর্ষণ হিসেবে থাকলেও হাতের সৌন্দর্য বাড়ানোর প্রক্রিয়া হিসেবে ম্যানিকিউর বিশেষ পরিচিতি পাচ্ছে বাংলাদেশে।   

একজন ম্যানিকিউরিস্ট কোথায় কাজ করেন?

ম্যানিকিউরিস্টের কাজ সাধারণত বিউটি পার্লার ও রূপচর্চা ইন্ডাস্ট্রিতেই দেখা যায়। এক্ষেত্রে একজন ম্যানিকিউরিস্টকে সাধারণত নিম্নলিখিত প্রতিষ্ঠানগুলোতে নিয়োগ দেওয়া হতে পারে –

১। বিভিন্ন নেইল স্টুডিও যেখানে প্রধানত নখের সাজসজ্জা বা ম্যানিকিউরের কাজ করা হয়।

২। বিউটি পার্লার যেখানে সাধারণত রূপচর্চার কাজ করা হয়। সাধারণত বড় পার্লারগুলোতে ম্যানিকিউরের সুযোগ থাকে। বর্তমানে সবধরনের পার্লারেই ম্যানিকিউরের কাজ করা হয়।

৩। বিভিন্ন কসমেটিকস সামগ্রী বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান যেখানে ম্যানিকিউরের ব্যবস্থাও রাখা হয় কিছু ক্ষেত্রে।  

একজন ম্যানিকিউরিস্ট কী ধরনের কাজ করেন?

ম্যানিকিউরিস্টের কাজ হাতের নখের সাজসজ্জা ঘিরে আবর্তিত হয়। এক্ষেত্রে একজন ম্যানিকিউরিস্টকে যে কাজগুলো করা লাগতে পারে তা হল –

১। নখ পরিস্কার করা।

২। নখ ছোট করা।

৩। নখ পালিশ করা।

৪। নখে বিভিন্ন ধরনের নকশা করা। নকশার মধ্যে নখে বিভিন্ন ধরনের ছবি আঁকা বা কোন কিছুর প্রতীক তুলে ধরা উল্লেখযোগ্যযেমন – নকশার মধ্যে প্রজাপতি, পোলকা ডট ইত্যাদি থাকতে পারে।

৫। নকল (এক্রিলিক ও জেল) নখ লাগানো।

৬। নখের নিচের ত্বক বা কিউটিকলে সমস্যা থাকলে তা ঠিক করা।

৭। প্যারাফিন মোমের মাধ্যমে নখের যত্ন নেওয়া ও ত্বকের সমস্যার সমাধান করা।

৮। ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারের মাধ্যমে নখের নিচের ত্বকের আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনা।

একজন ম্যানিকিউরিস্ট কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয়?

ম্যানিকিউরিস্ট নিয়োগের ক্ষেত্রে ধরাবাঁধা কোন শিক্ষাগত যোগ্যতা সাধারণত লাগে না। এক্ষেত্রে বিষয়টি কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ।

১। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে যে কোন প্রতিষ্ঠান থেকে উচ্চমাধ্যমিক বা এ লেভেল পাস করেছেন এমন ব্যক্তিদের নিয়োগ দেওয়া হয়

২। অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানেই ম্যানিকিউরিস্ট হিসেবে সাধারণত নারীদের নিয়োগ দেওয়া হয়।

৩। নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় অভিজ্ঞতা সাধারণত সর্বোচ্চ ২ বছর চাওয়া হয়তবে বিষয়টি প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ।

৪। নিয়োগের ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট বয়সসীমার বিষয়টি প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ হলেও কিছু প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ১৮ থেকে ৩৫ বছর বয়সের কথা উল্লেখ করা থাকতে পারে। বাংলাদেশে এই ইন্ডাস্ট্রির ক্ষেত্রে এখন পর্যন্ত মেকআপ বা বিউটি বিষয়ে পড়াশোনা করা বাধ্যতামূলক নয় কারণ এমন শিক্ষাগত যোগ্যতা বা ডিগ্রি আছে মানুষের সংখ্যা দেশে খুব বেশি নয়। এক্ষেত্রে অভিজ্ঞতাকে সাধারণত সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হিসেবে দেখা হয়।

একজন ম্যানিকিউরিস্টের কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয়?

১। ম্যানিকিউর বিষয়ে সম্যক ধারণা থাকতে হবে।  

২। ম্যানিকিউরের কাজের ক্ষেত্রে আগ্রহ থাকতে হবে। নিজ ইচ্ছায় আগ্রহী না হলে এই ক্ষেত্রে কাজ করা কঠিন বিধায় সম্যক ধারণা আছে এবং যথেষ্ট আগ্রহ আছে এমন কাউকেই নিয়োগ দেওয়া হয়।

৩। ইংরেজী ও বাংলা উভয় ভাষায় কথা বলায় পারদর্শী হতে হবে। এক্ষেত্রে কাস্টমারের সাথে আপনার যোগাযোগের ক্ষমতা ও পারদর্শিতা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিবেচনাধীন বিষয়।

৪। কাজ ও কাস্টমারের সাথে যোগাযোগের ক্ষেত্রে বিচক্ষণ হওয়া জরুরি।   

৫। নখের ত্বকের বিষয়টি বেশ স্পর্শকাতর বিধায় এ ব্যাপারে গভীর ধারণা থাকা জরুরি।

৬। নখ পালিশ বা নখের নকশার জন্য কী ধরনের কসমেটিকস ব্যবহার করবেন এবং কোন পণ্যটি ভাল সে ব্যাপারে ভাল ধারণা থাকতে হবে।

একজন ম্যানিকিউরিস্টের মাসিক আয় কেমন?

আপনি যদি একজন ম্যানিকিউরিস্ট হিসেবে কাজ করতে চান সেক্ষেত্রে মাসিক সম্মানীর বিষয়টি কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ। ম্যানিকিউরিস্টের কাজ নির্দিষ্ট এবং তুলনামূলকভাবে কম হওয়ায় এই পদের জন্য মাসিক সম্মানীর পরিমাণ সাধারণত কম হয়। বিষয়টি কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ হলেও একজন ম্যানিকিউরিস্টকে সাধারণত মাসে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকার মত সম্মানী দেওয়া হয়অনেক ক্ষেত্রে আপনার কাজের প্রেক্ষিতে বোনাসের ব্যবস্থা রাখা হয়। যদি আপনার প্রতিষ্ঠানের কাছে আপনার কাজ ভাল লাগে সেক্ষেত্রে মাসিক পাঁচ হাজার টাকার মত বোনাস পেতে পারেন আপনি আপনার নিয়মিত মাসিক সম্মানীর পাশাপাশি।

কোথায় শিখবেন ম্যানিকিউর?

বাংলাদেশে এ ব্যাপারে কোন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার ব্যবস্থা না থাকলেও কিছু বিউটি পার্লার এবং বিউটি লাউঞ্জ প্রতিষ্ঠানগুলোতে ম্যানিকিউর বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানগুলো বিভিন্ন কোর্স চালু রেখেছে। ম্যানিকিউর বিষয়ে প্রশিক্ষণ নিতে আপনি চাইলে কিছু ক্ষেত্রে ১৬০০০ টাকার বিনিময়ে ১০ ক্লাসের কোর্সে ভর্তি হতে পারেন। কোর্সভিত্তিক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে এ বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয় এমন একটি প্রতিষ্ঠান হল পারসোনা ইন্সটিটিউট অব বিউটি অ্যান্ড লাইফস্টাইল।

একজন ম্যানিকিউরিস্টের ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে?

ম্যানিকিউরিস্টের ক্যারিয়ারের বিষয়টি প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ। এক্ষেত্রে কাজ এককেন্দ্রিক এবং খুবই সুনির্দিষ্ট হওয়ায় সাধারণত পদোন্নতি ও ক্যারিয়ার উন্নয়নের তেমন সুযোগ নেই।

 

 

 

Loading

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।