পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজার

পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজার: ক্যারিয়ার প্রোফাইল - ক্যারিয়ারকী (CareerKi)

একজন পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজার পোলট্রি ফার্মের সার্বিক তত্ত্বাবধানের কাজ করেন। তবে কিছু ক্ষেত্রে তাকে হ্যাচারির সুপারভাইজার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করতে হয়।

এক নজরে একজন পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজার

সাধারণ পদবী: পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজার, পোলট্রি ফার্ম ম্যানেজার
বিভাগ: প্রাণিসম্পদ
প্রতিষ্ঠানের ধরন: সরকারি, বেসরকারি, প্রাইভেট ফার্ম/কোম্পানি
ক্যারিয়ারের ধরন: ফুল-টাইম
লেভেল: মিড
মিড লেভেলে সম্ভাব্য অভিজ্ঞতা সীমা: ২ – ৫ বছর
মিড লেভেলে সম্ভাব্য গড় বেতন: ৳২০,০০০ – ৳৫০,০০০
মিড লেভেলে সম্ভাব্য বয়স: ৩০ বছর
মূল স্কিল: প্রাণিসম্পদ ব্যবস্থাপনা, প্রজেক্ট ব্যবস্থাপনা, কর্মী ব্যবস্থাপনা
বিশেষ স্কিল: ব্যবসায়িক ধারণা, ব্যবসায়িক সমাধান দিতে পারা, যোগাযোগের দক্ষতা, সমস্যা সমাধানের দক্ষতা

একজন পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজার কোথায় কাজ করেন?

  • পোলট্রি শিল্পের সাথে যুক্ত বড় প্রতিষ্ঠানে, যেমনঃ নিউ হোপ ফার্মস বাংলাদেশ, কাজী ফার্মস গ্রুপ, নারিশ বাংলাদেশ;
  • স্থানীয় মুরগির খামারে।

একজন পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজার কী ধরনের কাজ করেন?

  • পোল্ট্রি ফার্মের দৈনন্দিন কর্মপরিকল্পনা তৈরি;
  • পোল্ট্রি ফার্মের বিভিন্ন যন্ত্র ঠিকভাবে চলছে কি না, তা নিয়মিত পরীক্ষা করা;
  • ফার্মের মুরগিদের ঠিকভাবে পালন করা কি না, সে ব্যাপারে খেয়াল রাখা;
  • ফার্মের মুরগিদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার ব্যবস্থা করা;
  • ডিম সংগ্রহের সঠিক হিসাব রাখা;
  • উৎপন্ন খাবারের মান যাচাই করা;
  • মুরগি ও ডিম বাজারজাতকরণের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া;
  • ফার্মের কর্মীদের কাজের তদারকি করা;
  • ক্লায়েন্টদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করা।

একজন পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজারের কী ধরনের যোগ্যতা থাকতে হয়?

শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ সাধারণত এইচএসসি থেকে শুরু করে চার বছরের স্নাতক ডিগ্রি চাওয়া হয়।

বয়সঃ প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষে বয়সের সীমা নির্ধারিত হয়।

অভিজ্ঞতাঃ বড় প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ১০ থেকে ১৫ বছরের পূর্ব অভিজ্ঞতা দরকার হয়। ছোট ফার্মে ২ বছরের অভিজ্ঞতা যথেষ্ট।

একজন পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজারের কী ধরনের দক্ষতা ও জ্ঞান থাকতে হয়?

  • পশুপালন সম্পর্কে ভালো ধারণা থাকা;
  • পোলট্রি ফার্মে ব্যবহৃত সরঞ্জামের ব্যবহার জানা;
  • বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মী ও ক্লায়েন্টের সাথে দক্ষভাবে যোগাযোগ করতে পারা;
  • ব্যবসায়িক সমস্যা দ্রুততার সাথে সমাধানের দক্ষতা;
  • ফার্মের সম্পদের রক্ষণাবেক্ষণের দক্ষতা।

একজন পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজারের মাসিক আয় কেমন?

মাসিক আয় কাজ ও প্রতিষ্ঠানসাপেক্ষ। স্নাতক বা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন, এমন কারো জন্য মাসিক বেতন ৳৫০,০০০ – ৳১০০,০০০ পর্যন্ত বেতন হতে পারে। ছোট প্রতিষ্ঠান বা ফার্মের ক্ষেত্রে মাসিক আয় ৳২০,০০০ – ৳৩০,০০০। কারিগরি শিক্ষাগত যোগ্যতার কেউ হলে সেক্ষেত্রে মাসিক আয় ৪০ হাজার টাকা হতে পারে।

একজন পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজারের ক্যারিয়ার কেমন হতে পারে?

পোলট্রি ফার্ম সুপারভাইজার হিসাবে কাজ করতে হলে আগে পোলট্রি ফার্মে কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকা জরুরি। সাধারণত এন্ট্রি লেভেলে অ্যাসিস্ট্যান্ট সুপারভাইজার পদে নিয়োগ দেয়া হয়।

বিশেষ কৃতজ্ঞতাঃ ড. মোঃ আলী ইমাম, জিমস টেক ইন্টারন্যাশনাল; নারিশ বাংলাদেশ

Leave a Reply

আপনার নাম ও ইমেইল ঠিকানা দেয়া আবশ্যক। তবে মতামতের সাথে ইমেইল দেখানো হবে না।